অনশনরত শিক্ষার্থীকে ‘অমানুষের বাচ্চা’ বললেন কুবির সহকারী প্রক্টর

ডেস্ক রিপোর্টঃ কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) শিক্ষার্থীদের বহনকারী বাস সংকট নিরসনের দাবিতে আমরণ অনশনে বসেছেন বিশ্ববিদ্যালয়টির আইন বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী রিফাত আদনান।

এদিকে বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা তার সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করলে তাদেরকে ‘অমানুষের বাচ্চা’ বলে গালি দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর শুভব্রত শাহা।

শিক্ষকের এমন আচরণে ক্যাম্পাসজুড়ে ক্ষোভ বিরাজ করছে শিক্ষার্থীসহ সংশ্লিষ্টদের মাঝে।

সোমবার বেলা সাড়ে ১১টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্যের সামনে বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড নিয়ে আমরণ অনশনে বসেন ওই শিক্ষার্থী। এ সময় তার সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরাসহ বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ।

অনশনকারী রিফাত জানান, ‘আমাদের শিক্ষার্থীদের দীর্ঘদিনের দাবি ছিল বাস সংকট নিরসন করা, কিন্তু প্রশাসন আমাদেরকে বারবার আশ্বাস দিয়েও তা পূরণ করেনি। তাই আজ আর কোনো পথ না পেয়ে আমি অনশনে বসতে বাধ্য হয়েছি। আমি নিজেও দুদিন আগে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসচালকদের বেপরোয়া গাড়ি চালানোর কারণে দুর্ঘটনার শিকার হয়েছি। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আমি অনশন চালিয়ে যাব।’

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবহন কমিটির আহ্বায়ক ড. স্বপন চন্দ্র মজুমদার বলেন, ‘আমরা দ্রুত সমস্যাগুলোর সমাধানের চেষ্টা করছি। ইতিমধ্যে অনেক সমস্যার সমাধান হয়েছে।’

এ সময় ঘটনাস্থলে গিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের সহকারী প্রক্টর শুভব্রত শাহা শিক্ষার্থীদের অযথা ‘অমানুষের বাচ্চা’ বলে গালি দিলে শিক্ষার্থীরা আরও ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠে।

গালি দেয়ার বিষয়ে শুভব্রত শাহা বলেন, ‘আমি ভিসি স্যারের অসুস্থতার কথা বোঝাতে গিয়ে তাদের ‘মানুষের বাচ্চা না’ বলে ফেলি। এর জন্য আমি সবার কাছে ক্ষমা চেয়েছি।’

এদিকে শিক্ষার্থীদের আন্দোলন থেকে ফেরানোর জন্য শিক্ষার্থীদের তাদের নিজ নিজ বিভাগের শিক্ষকদের দ্বারা চাপ প্রয়োগ করা হচ্ছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

সার্বিক বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার অধ্যাপক ড. মো. আবু তাহের বলেন, ‘আমরা বিআরটিসি চেয়ারম্যানের সঙ্গে কয়েকবার বৈঠক করেছি। নতুন বাস আসলেই আমাদের পরিবহনে তা যুক্ত হবে।’

সূত্রঃ যুগান্তর

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ