অভিনন্দনের পাশে দাঁড়ানো কে এই নারী?

পাক-ভারতের আত্তারি-ওয়াঘা সীমান্ত গেট এ পাইলট অভিনন্দনকে তুলে দিতে তারিই পাশে দাঁড়ানো এই নারীর পরিচয় জানার জন্য কৌতুহল শুরু হয়েছে অনেকের মধ্যে। রাত ৯টা ২০ মিনিট। ভারতের হাতে অভিনন্দনকে তুলে দিতে কিছুক্ষণের জন্য খোলা হয় ওয়াঘার গেট। সেই গেট দিয়ে ৫৫ ঘণ্টা পর দেশের মাটিতে পা রাখেন উইং কমান্ডার অভিনন্দন বর্তমান।

শুক্রবার (১ মার্চ) রাত ৯ টা ২০ মিনিটে ভারতীয় পাইলটকে দেশে ফেরত পাঠায় পাক সেনারা। এসময় ওই পাইলটের পাশে যে মহিলা ছিলেন তিনি পাকিস্তান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা। নাম তার ড. ফারিয়া বুগতি।

এদিকে ভারতীয় বিমান বাহিনী অভিনন্দনকে ঘিরে ছোট বলয় তৈরি করে পাক-ভারত। সেই বলয়ে এক নারীর উপস্থিতি সবার চোখে পড়ে। লাল চুড়ি ও পায়জামা পড়া সেই নারী অভিনন্দনের পাশেই দাঁড়ান। মাঝে তাকে বিমান বাহিনীর এক কর্মকর্তার সঙ্গে ফিসফিস করে কথা বলতে দেখা যায়।

এরপরই অভিনন্দনের পাশে দাঁড়ানো ওই নারীকে কেউ কেউ অভিনন্দনের স্ত্রী ভেবে বসেন। কিন্তু ভুল ভাঙে কিছুক্ষণ পর। ওই নারী অভিনন্দনের স্ত্রী নন। তিনি উইং কমান্ডারের পরিবারের সদস্য। তার নাম ড. ফারিহা বুগতি। তিনি পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের একজন কর্মকর্তা।

তিনি বিদেশের মাটিতে ভারত সংক্রান্ত কেসগুলো তিনি দেখভাল করেন। পাকিস্তানের হাতে বন্দি ভারতীয় কুলভূষণ যাদবের কেসটি তিনি দেখছেন। পাকিস্তানের অভিযোগ, যাদব আসলে ভারতের চর। গত বছর ইসলামাবাদে কুলভূষণ যাদবের সঙ্গে যখন তার মা ও স্ত্রী দেখা করতে গিয়েছিল সেই সাক্ষাৎকারের সময় উপস্থিত ছিলেন ড. বুগতি।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ