আদালতে আসিফ, রিমান্ড চাওয়া হবে সাত দিনের

ডেস্ক রিপোর্টঃ তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) আইনে মামলা হয়েছে জনপ্রিয় সংগীতশিল্পী আসিফ আকবরের নামে। সংগীত অঙ্গনের আরেক প্রতিভাবান গীতিকার, সুরকার ও সংগীতশিল্পী শফিক তুহিনের করা এ মামলায় মঙ্গলবার দিবাগত রাতে সিআইডির একটি বিশেষ দল রাজধানীর মগবাজার থেকে আসিফকে গ্রেফতার করে।

সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার মোল্যা নজরুল ইসলাম জানান, সোমবার সন্ধ্যায় আসিফের বিরুদ্ধে তেজগাঁও থানায় আইসিটি অ্যাক্টের এ মামলাটি দায়ের করেন শফিক তুহিন। আজ বুধবার তাকে আদালতে হাজির করে সাত দিনের রিমান্ড চাওয়া হবে।

মামলায় শফিক তুহিন অভিযোগ করেছেন, গত ১ জুন একটি বেসরকারী টেলিভিশন চ্যানেলের এক প্রতিবেদনের মাধ্যমে তিনি জানতে পারেন সংগীতশিল্পী আসিফ আকবর তার (শফিক তুহিন) লেখা ও সুর করা গানসহ অন্যান্য শিল্পীর মোট ৬১৭টি গান অনুমতি ছাড়াই বিভিন্ন মাধ্যমে বিক্রি করছেন। আসিফ তার প্রযোজনা সংস্থা আর্ব এন্টারটেইনমেন্টের চেয়ারম্যান হিসেবে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে এ গানগুলো ডিজিটাল রূপান্তর করছেন এবং প্রতারণার মাধ্যমে সেখান থেকে বিপুল পরিমাণ অর্থও হাতিয়ে নিচ্ছেন।

শফিক তুহিন মামলায় আরও উল্লেখ করেন, ২ জুন রাতে তিনি নিজ ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে অনুমোদন ছাড়া গান বিক্রির বিষয়ে একটি পোস্ট দেন। সেই পোস্টে আসিফ অশালীন মন্তব্য করেন ও তাকে হুমকি দেন। ৩ জুন নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে লাইভে এসেও আসিফ অবমাননাকর, অশালীন ও মিথ্যা-বানোয়াট বক্তব্য দেন। এসব বিবেচনায় এই শিল্পীর বিরুদ্ধে মামলা করা হয়েছে।

আসিফ আকবর ২০০১ সালে প্রকাশিত তার প্রথম গানের অ্যালবাম ‘ও প্রিয়া তুমি কোথায়’-এর মাধ্যমে ব্যাপক পরিচিতি ও জনপ্রিয়তা লাভ করেন। ২০০১ থেকে ২০০৬ সাল পর্যন্ত পরপর ছয় বছর অ্যালবাম বিক্রির দিক থেকে শীর্ষে ছিলেন আসিফ। তার প্রথম অ্যালবাম ৫৫ লাখ কপি বিক্রি হয়েছিল, যা অডিও ইতিহাসে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ