বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধন বিলকে ঘিরে আজ শনিবারও (২১ ডিসেম্বর) উত্তাল ভারতের উত্তরপ্রদেশ। এদিকে থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে দেশটির রাজধানী দিল্লিতে। উত্তরপ্রদেশে বৃহস্পতিবার থেকে টানা দুই দিনের বিক্ষোভে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১১ জনে দাঁড়িয়েছে। তাঁদের মধ্যে ৮ বছরের এক কিশোরও রয়েছে বলে জানা যায়। সকাল থেকেই উত্তরপ্রদেশের রামপুরে বিক্ষোভ শুরু হয়। বিক্ষুদ্ধ জনতাকে ছত্রভঙ্গ করতে কাঁদানে গ্যাস ছোঁড়ে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ। গতরাত থেকেই রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ রয়েছে।

ভারতের একটি গণমাধ্যম জানিয়েছে, শুক্রবার বিভিন্ন জেলায় জনতা-পুলিশ সংঘর্ষে শুধুমাত্র মেরঠেই নিহত হয়েছেন ৪ জন। ঐ সংঘর্ষের মধ্যে পদদলিত হয়ে ৮ বছরের এক কিশোরের মৃত্যু হয়। জেলায় জেলায় সংঘর্ষে আহত হয়েছেন বহু মানুষ। অন্তত ৬ পুলিশ সদস্যের গায়ে গুলি লেগে তারা গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন বলে দাবি করছে পুলিশ। এমন পরিস্থিতিতেই জনতাকে লক্ষ্য করে গুলি ছুঁড়ে পুলি বলে দাবি করছেন রাজ্য পুলিশের উ-মহাপরিদর্শক ওপি সিংহ। উত্তরপ্রদেশের জেলার জেলায় সংঘর্ষের পর রাত থেকেই লখনৌ, বিজনৌর, মেরঠ, ফিরোজাবাদ, কানপুর, সম্বল, মোরাদাবাদ, আলিগড়, বরেলী, ইলাহাবাদসহ রাজ্যের বিভিন্ন জেলায় ইন্টারনেট পরিষেবা বন্ধ করে দেওয়া হয়। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ উত্তপ্ত পরিস্থিতি নিয়ে এ দিন রাজ্যপালের সঙ্গে বৈঠক করবেন বলেও জানায় গণমাধ্যমটি।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: