গাজীপুরের সিংহশ্রী ইউনিয়নের কাপাসিয়ায় হিন্দু সম্প্রদায়ের একই পরিবারের ছয়জন ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেছেন। শুক্রবার (১লা নভেম্বর) জুমার নামাজের পর উপজেলার সিংহশ্রী ইউনিয়নের কুলগঙ্গা গ্রামের ওই ছয়জন আনুষ্ঠানিকভাবে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন। সিংহশ্রী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আশ্রাফ উদ্দিন খান আল আমিন জানান, ‘শুক্রবার জুমার নামাজের সময় কুলগঙ্গা মসজিদে এসে শত শত মুসল্লির সামনে প্রথমে ওই পরিবারের তিন সদস্য ঝন্টু দাস, জয়ন্ত দাস ও সৌরভ দাস স্বেচ্ছায় ইসলাম গ্রহণ করেন। মসজিদের ইমাম নুর মোহাম্মদ ও মাওলানা আব্দুর রহিম কালেমা পড়িয়ে তাদের ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করান এবং পূর্বের নাম পরিবর্তন করে নতুন ইসলামি রাখেন। পরে নওমুসলিমরা খুতবা শুনেন এবং জুমার নামাজ আদায় করেন। জুমার নামাজ শেষে ঝন্টু দাস (নতুন নাম মো. জাহাঙ্গীর আলম জসিম) মসজিদের ইমামকে সঙ্গে নিয়ে তাদের বাড়িতে গিয়ে মা-বাবা ও স্ত্রীসহ স্বপরিবারে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন।

এ বিষয়ে নওমুসলিম মো. জাহাঙ্গীর আলম জসিম ও তার বাবা আতিকুল্লাহ বলেন, ‘আমরা স্বেচ্ছায় শান্তির ধর্ম ইসলাম গ্রহণ করেছি। আমাদেরকে কেউ চাপ দিয়ে ধর্মান্তরিত করেনি।’ ইসলাম ধর্ম গ্রহণ সদস্যরা হলেন- উপজেলার সিংহশ্রী ইউনিয়নের কুলগঙ্গা গ্রামের অনিল চন্দ্র দাস (৭০), তার স্ত্রী শ্রীমতি রুনুবালা দাস (৬৫), ছেলে ঝন্টু দাস (৪০), ঝন্টু দাসের স্ত্রী শ্রীমতি লতা রানী দাস (৩৫), তাদের ছেলে জয়ন্ত দাস (১০) ও সৌরভ দাস (৭)। ইসলাম গ্রহণের পর অনিল চন্দ্র দাসের নতুন নাম রাখা হয় মো. আতিকুল্লাহ, রুনুবালা দাসের নাম মোছা. রাবেয়া খাতুন, শ্রী ঝন্টু দাসের নাম মো. জাহাঙ্গীর আলম জসিম, লতা রানী দাসের নাম আয়শা খাতুন, শ্রী জয়ন্ত দাসের নাম মো. জাবের আহমেদ ও শ্রী সৌরভ দাসের নাম মো. আসাদ উল্লাহ রাখা হয়।