ছবিঃ প্রতিকী

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে কলাগাছ পড়ে বালতি ভাঙাকে কেন্দ্র করে বাকবিতণ্ডার এক পর্যায়ে ছোট ভাইয়ের ইটের আঘাতে বৃদ্ধ বড় ভাই ফজলু (৬৫) খুন হয়েছেন।

শুক্রবার (২৩ অক্টোবর) বিকেল চারটায় উপজেলার ব্রাহ্মন্দী ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের ব্রাহ্মন্দী উত্তরপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার পর প্রধান অভিযুক্ত এবাদুল ও তার পরিবারের অন্য সদস্যরা পলাতক রয়েছেন। তবে ঘটনাস্থল থেকে পুলিশ এবাদুলের স্ত্রী সেলিনাকে (৩৫) আটক করেছে।

নিহত ফজলু মৃত গণি মিয়ার ছেলে। হত্যাকাণ্ডের খবর পেয়ে আড়াইহাজার থানা পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য সদরের নারায়ণগঞ্জ জেনারেল (ভিক্টোরিয়া) হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

আড়াইহাজার থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নজরুল ইসলাম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে মৃতের পরিবারের বরাত দিয়ে বলেন, এবাদুল তার বাড়ির পাশে একটি কলাগাছ কাটেন। একই সময় তার বড় ভাই ফজলু গাছের পাশ দিয়ে যাচ্ছিলেন। এক পর্যায়ে কলা গাছটি ফজলুর বালতির ওপর পড়লে বালতিটি ভেঙে যায়। এ নিয়ে দুই ভাইয়ের মধ্যে বাকবিতণ্ডার চলতে থাকে। পরে দুই পরিবারের লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষ বেধে যায়। এক পর্যায়ে ছোট ভাই এবাদুল তার বড় ভাই ফজলুর মাথায় ইট দিয়ে আঘাত করে। এতে ঘটনাস্থলেই ফজলুর মৃত্যু হয়।

ওসি আরও বলেন, ঘটনাস্থল থেকে অভিযুক্ত এবাদুলের স্ত্রী সেলিনাকে আটক করা হয়েছে। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ চলছে এবং তার স্বামী এবাদুলকে গ্রেফতারে পুলিশ অভিযান অব্যাহত রেখেছে। এ ঘটনায় নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা প্রক্রিয়াধীন।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: