কুবির ভর্তি পরীক্ষায় ছাত্রলীগের ‘জয় বাংলা বাইক সার্ভিস’

ডেস্ক রিপোর্টঃ কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি পরীক্ষা দিতে আসা শিক্ষার্থীদের দ্রুত সঠিক কেন্দ্রে পৌঁছে দিতে ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে ছিল ‘জয় বাংলা বাইক সার্ভিস’। শুক্রবার কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের বি ইউনিটে পরীক্ষা দিতে আসা বেশ কয়েকজন শিক্ষার্থীকে সহায়তা করেছে ‘জয় বাংলা বাইক সার্ভিস’।

তখন পরীক্ষা শুরুর মাত্র ১২ মিনিট বাকী। মেহেরুন্নেছা মিশু নামের একজন শিক্ষার্থী ভুলক্রমে প্রায় কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজের পরিবর্তে ১০ কিলোমিটার দূরে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে চলে আসে। পরীক্ষার শুরুর ৪ মিনিটের মাথায় দ্রুত পরীক্ষার্থীকে সঠিক কেন্দ্রে পৌঁছে দেয় জয়বাংলা বাইক সার্ভিস।

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোঃ রেজাউল ইসলাম মাজেদ বলেন, ‘বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তিচ্ছু শিক্ষার্থীদের অনেকেই কেন্দ্র ভুল করে ভুল কেন্দ্রে চলে আসে। তাদের কথা চিন্তা করেই আমরা এই সার্ভিস চালু করেছি। এবারের ভর্তি পরীক্ষায় আমাদের মোট ২০টি বাইক কাজ করেছে’।

সঠিক কেন্দ্রে এক শিক্ষার্থীকে পৌঁছে দেওয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের বঙ্গবন্ধু হল শাখার ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক হানিফ ওয়াহিদ বলেন, ‘এমন একটি ভাল কাজ করতে পেরে আমি সত্যিই আনন্দিত। খুব ভাল লাগছে। অনেকটা পথ দ্রুততার সাথে পৌঁছানোর ফলে সে পরীক্ষা দিতে পেরেছে। বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের এমন জয় বাংলা বাইক সার্ভিসের এমন উদ্যোগের ফলে অনেকেই সহায়তা পেয়েছে’।

এর আগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষায় শিক্ষার্থীদের সহায়তায় জয় বাংলা বাইক সার্ভিস চালু করেছিল ছাত্রলীগ। এরই ধারাবাহিকতায় কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়েও একই সার্ভিস চালু করেছে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ।

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ে (কুবি) ২০১৮-১৯ শিক্ষাবর্ষে কলা, মানবিক, আইন ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘বি’ ইউনিটের অধীনে ১ম বর্ষ সম্মান শ্রেণিতে ভর্তি পরীক্ষা শেষ হয়েছে। শুক্রবার বিকাল ৩টা থেকে ৪টা পর্যন্ত বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস ও ক্যাম্পাসের বাইরের মোট ১৮টি কেন্দ্রে এ পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়েছে। তবে জালিয়াতির অভিযোগে দুইজনকে আটক করা হয়।

পরীক্ষার কেন্দ্র পরিদর্শন পর কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক এমরান কবির চৌধুরী বলেন, সাংবাদিকদের বলেন, ‘খুবই সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে পরীক্ষা হয়েছে। বাইরের কেন্দ্রেগুলোও বিশেষ নজরদারীতে ছিল। আগামীকালের পরীক্ষাগুলোও একইভাবে অনুষ্ঠিত হবে বলে আমরা আশাবাদী’।

কুবির কলা, মানবিক, আইন ও সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদভুক্ত ‘বি’ ইউনিটে এ বছর ৪৫০টি আসনের জন্য ভর্তিচ্ছু আবেদনকারীর সংখ্যা ছিল ২৪ হাজার ২৩২ জন। অর্থাৎ প্রতি আসনের বিপরীতে পরীক্ষায় অংশ নিয়েছে ৫৪ জন।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ