নিজস্ব প্রতিবেদকঃ কুমিল্লার আদর্শ সদর ও সদর দক্ষিণ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিনা প্রতিদ্ধন্ধিতায় বিজয়ী চেয়ারম্যান,ভাইস-চেয়ারম্যান ও মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যানদের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার দুপুরে চট্রগ্রাম বিভাগীয় কমিশনারের কার্যালয়ে ওই শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। শপথ বাক্য পাঠ করান বিভাগীয় কমিশনার মো: আবদুল মান্নান।

জানা যায়, ৫ম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে কুমিল্লা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী আ ক ম বহাউদ্দিন বাহারের একান্ত আস্থাভাজন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী ও কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলা পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান এড.মো.আমিনুল ইসলাম টুটুল দ্বিতীয়বারের মতো চেয়ারম্যান হিসেবে শপথ নেন। অপর দিকে সদর দক্ষিণ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল এমপির ছোট ভাই ও বর্তমান চেয়ারম্যান গোলাম সারওয়ার তৃতীয়বারের মতো আবারো চেয়ারম্যান হিসেবে শপথ নেন। শপথ অনুষ্ঠানে বিভাগীয় কার্যালয়ের অন্যান্য কর্মকর্তা আদর্শ সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা চৌধুরী আশরাফুল করিম ও সদর দক্ষিন উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা মিয়া মোহাম্মাদ কেয়াম উদ্দিন,বিভিন্ন উপজেলা চেয়ারম্যানসহ দলীয় নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আদর্শ সদরে সদরে টুটুল-জুয়েল-বকুল প্যানেলের পুনরায় শপথ :
গত ৯ মে ৫ম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ৫ম ধাপে কুমিল্লা আদর্শ সদর ও সদর দক্ষিণ উপজেলা পরিষদের তফসিল ঘোষণা করা হয়। ঘোষিত তফসিল অনুসারে ৩০ মে মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহারের শেষ দিনে আদর্শ সদরে জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী ওবায়দুল কবির মোহন মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করে নেন। চেয়ারম্যান পদে আর কোন প্রার্থী না থাকায় আওয়ামীলীগের একক প্রার্থী হিসেবে এড.মো.আমিনুল ইসলাম টুটুলকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। অপরদিকে ভাইস-চেয়াম্যান পদে একক বৈধ প্রার্থী বর্তমান ভাইস-চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক তারিকুর রহমান জুয়েল ও মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে এড.হোসনেয়ারা বেগম বকুলকেও বিনা প্রতিদ্ধন্ধিতায় বিজয়ী ষোষণা করা হয়। এর আগে গত ২৩ মে রিটার্নিং কর্মকর্তা আদর্শ সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী এড.মো.আমিনুল ইসলাম টুটুল ও জাতীয় পাটি মনোনীত প্রার্থীর ওবায়দুল কবির মোহনের মনোনয়ন পত্র বৈধ বলে ঘোষণা করলেও আদর্শ সদরে আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী গাজী রিয়াজ মাহমুদের মনোনয়ন পত্র বাতিল হয়। একটি খুনের মামলা সংক্রান্ত তথ্য গোপন করায় তার ওই প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র বাতিল করা হয়। এছাড়া আদর্শ সদরে মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে লাকী আক্তার নামের অপর এক প্রার্থীর মনোনয়ন পত্র বাতিল করা হয়। মনোনয়ন পত্রে প্রস্তাবকারী ও সমর্থনকারী ভোটারদের স্বাক্ষরের গরমিল থাকায় মনোনয়ন পত্র বাতিল করা হয়। মনোনয় পত্র বাতিল হওয়া দুই প্রার্থী ই মনোনয়ন ফিরে পেতে আপিল করে মনোনয়ন ফিরে পাননি।

সদর দক্ষিনে সারওয়ার-বাবলুর পাশে নতুন মুখ পুতুল :
৩০ মে মনোনয়ন প্রত্যাহারের শেষ দিন কুমিল্লা সদর দক্ষিন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে জাতীয় পাটির প্রার্থী জোনাকী মুন্সি মনোনয়ন পত্র প্রত্যাহার করে নেওয়ায় আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী বর্তমান চেয়ারম্যান গোলাম সারওয়ার বিনা প্রতিদ্ধন্ধিতায় নির্বাচিত হন। ভাইস-চেয়ারম্যান পদে মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুল হাই বাবলু ও মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে অধ্যাপিকা নাছিমা আক্তার পুতুল বিনা প্রতিদ্বন্ধিতায় নির্বাচিত হন। ওই উপজেলায় আবদুল হাই বাবলু তৃতীয় বারের মতো ভাইস-চেয়ারম্যান এবং অধ্যাপিকা নাছিমা আক্তার পুতুল প্রথম বারের মতো মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। এর আগে মনোনয়ন পত্র বাছাইকালে ভাইস-চেয়ারম্যান প্রার্থী মো.কামাল উদ্দিন কামাল ও মহিলা-ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী খন্দকার ফরিদা ইয়াসমিনের মনোনয়ন পত্র বাতিল করা হয়।

উল্লেখ্য, গত ৯ মে কুমিল্লা আদর্শ সদর ও কুমিল্লা সদর দক্ষিন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। ঘোষিত তফসিলে মনোনয়নপত্র জমার শেষ দিন ছিল ২১ মে, মনোনয়ন পত্র যাচাই বাছাই করা হয় ২৩ মে, প্রার্থীতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ছিল ৩০ মে এবং ১৮ জুন ইভিএম এ ভোটগ্রহণের দিন ধায্য করা হয়েছিল।

এম.এইচ মনির
১৬-০৬-১৯