কুমিল্লার অধিকাংশ সড়ক খানাখন্দে ভরা

ডেস্ক রিপোর্টঃ কুমিল্লার একটি ব্যস্ততম সড়কে চলাচল দায় হয়ে পড়েছে। এছাড়াও জেলার অধিকাংশ সড়কে দুর্বিষহ অবস্থা বিরাজ করছে। কোনো কোনো সড়কে স্বাভাবিক চলাচলও দুষ্কর হয়ে পড়েছে। জেলার অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ কুমিল্লা সদরের চাঁপাপুর থেকে কোটবাড়ি পর্যন্ত সড়কে গর্ত আর খানাখন্দে স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ ও বিভিন্ন যানবাহনকে সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। সরেজমিনে জানা যায়, জেলা সদর এবং কুমিল্লা মহানগর এলাকা ছাড়াও বিভিন্ন উপজেলা সদর, পৌর এলাকা ও ইউনিয়ন পর্যায়ের অধিকাংশ সড়ক ভাঙাচোরা।

বেহাল এসব সড়কের মধ্যে অনেক গুরুত্বপূর্ণ সড়কও রয়েছে। এসব সড়কে দীর্ঘদিন ধরে খানাখন্দের সৃষ্টি হয়ে আছে। দিন দিন গর্তের সৃষ্টি হয়ে এর গভীরতা বাড়ছে। সংস্কারের অভাবে ইট-সুরকি উঠে ছোট-বড় গর্তের সৃষ্টি হয়ে নাজুক হয়ে পড়েছে সড়কের অবস্থা। এসব স্থানে প্রায়ই যানবাহন আটকে যাচ্ছে, ঘটছে দুর্ঘটনা। অনেক সময় সিএনজি ও অটোরিকশা কিংবা প্রাইভেট কার থেকে নেমে পেছন থেকে ঠেলে খানাখন্দের সড়কের গর্ত অতিক্রম করতে হচ্ছে।

কুমিল্লা চাঁপাপুর থেকে কোটবাড়ি পর্যন্ত সড়কটিতে দীর্ঘদিন ধরে বেহাল অবস্থা বিরাজ করছে। দিনে-রাতে শত শত ছোট-বড় বিভিন্ন যানবাহন চলাচল করতে গিয়ে প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনা ঘটছে। এ সড়কের প্রায় সকল স্থানের ইট-সুরকি উঠে গিয়ে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়ে স্বাভাবিক চলাচল দুষ্কর হয়ে পড়েছে। গাড়ির চালক, যাত্রী ও পথচারীরা জানান, এসব গর্তে ট্রাক, ট্রাক্টর, সিএনজি, মাইক্রো ও প্রাইভেটকারসহ ছোট-বড় অনেক যানবাহন প্রায় সময় আটকে যায় এবং এতে মহাদুর্ভোগের সড়কে যানজটে আটকা পড়ে আরো ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে। সড়কের মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতাল, সদর উপজেলা পরিষদ, ইপিজেড, টমছমব্রিজ, দৌলতপুর, ধনপুরসহ বিভিন্ন স্থানের অবস্থা একেবারে নাজুক হয়ে পড়েছে। এ সড়কের কয়েকটি স্থানে ইট বিছানো হলেও দুর্ভোগ কমছে না। সড়কের ধনপুর এলাকায় গর্তে আটকে পড়া ট্রাক চালক আবদুল বারেক বলেন, সড়কটি কাঁচা রাস্তায় পরিণত হয়ে পানির সঙ্গে কাদা মাটি যেন ঢেউ খেলছে।

এ দু.সহ নরক যন্ত্রণার অবসান কবে হবে জানি না। সওজ কুমিল্লার নির্বাহী প্রকৌশলী মোফাজ্জল হায়দার বলেন, চাঁপাপুর-কোটবাড়ি সড়কের বিভিন্ন স্থানে ইট বিছিয়ে গর্ত ভরাট করে যানবাহন চলাচলের জন্য ব্যবস্থা করা হয়েছে। তবে বৃষ্টির কারণে সড়কটি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। গুরুত্বপূর্ণ এ সড়কটি সংস্কারের জন্য টেন্ডার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করা হয়েছে। সহসা এর কাজ শুরু করা হবে। সড়কের সংস্কার কাজ সম্পন্ন হলে আশা করি ভোগান্তি কেটে যাবে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ