কুমিল্লার চান্দিনার তেওনাই গ্রামের ফসলী জমিতে প্রভাবশালী এক ব্যক্তি সরকারী নির্দেশনা অমান্য করে অবাধে ড্রেজার বসিয়ে মাটি বিক্রি করার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এতে আশপাশের ফসলী জমির মাটি ভেঙ্গে পড়ায় চাষাবাদ বিঘ্নিত হয়ে ক্ষতির সম্মুখিন হচ্ছে কৃষকরা।

স্থানীয় সুত্রে জানা যায়, জেলার চান্দিনা উপজেলার বরকইট ইউনিয়নের তেওনাই-হাজিপাড়া এলাকার মাঝামাঝি ফসলী জমির মাঠে দীর্ঘদিন ধরে চান্দিনার ছাঁয়কোট গ্রামের বাচ্চু মিয়ার ছেলে নুরুল ইসলাম ড্রেজার মেশিন বসিয়ে জমি থেকে মাটি উত্তোলন করছে। এসব মাটি ফসলী জমির উপর দিয়ে প্লাষ্টিকের মোটা পাইপে করে টাকার বিনিময়ে আশপাশসহ বিভিন্ন দুরবর্তী এলাকার জলাশয়, ডোবাসহ বিভিন্ন খানাখন্দক ভরাটের কাজে ব্যবহার করছে।

তেওনাই গ্রামের সালাম সহ একাধিক ব্যক্তি জানান, দীর্ঘ দিন ধরে বাচ্চু মিয়া জমির মাঝখানে ড্রেজারটি বসিয়ে মাটি তুলে বিক্রি করছে। স্থানীয় একাধিক ফসলী জমির মালিক নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, দিনের পর দিন এভাবে মাটি উত্তোলন করার কারণে ড্রেজার বসানোর স্থানটি গভীর হয়ে যাওয়ায় আশপাশের জমির মাটি ভেঙ্গে পড়ছে। এতে চাষাবাদে দারুন বিঘ্নিত হচ্ছে কৃষকদের। প্রভাবশালী হওয়ার কারণে ভয়ে প্রকাশ্যে কেউ প্রতিবাদ করতে সাহস পাচ্ছেনা। তবে মৌখিকভাবে প্রশাসনকে বিষয়টি অবহিত করলেও অজ্ঞাত কারণে কোন ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়নি। ফলে দিন দিন আশপাশের জমির মাটি ভেঙ্গে পড়ছে।

সরেজমিন ঘটনাস্থলে ঘুরে ড্রেজারের অস্তিত্ব দেখতে পেয়ে মোবাইল ফোনে ড্রেজারের মালিক বাচ্চু মিয়ার সাথে মোবাইল ফোনে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তার ছেলে নুরুল ইসলাম ফোন রিসিভ করে জানান, তেওনাই গ্রামের জহির আমার কাছ থেকে ড্রেজারটি ভাড়া নিয়েছে। তবে তেওনাই বাজারের একাধিক দোকানদারও নাম পরিচয় গোপন রাখার শর্তে জানান, বাচ্চু মিয়ার ছেলে নুরুল ইসলাম প্রভাব খাটিয়ে ড্রেজারটি পরিচালনা করছে। ড্

রেজারের কাছে গেলে সেখানে কর্তব্যরত একজন শ্রমিক জানান, ১৫ দিন ধরে আমি এই ড্রেজারটি চালাচ্ছি। তবে স্থানীয় অনেকেই নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, ড্রেজারটি অনেকদিন ধরে চালানো হচ্ছে। ড্রেজারের মালিক প্রতি ঘনফুট মাটি ৯/১০ টাকায় গ্রাহকদের কাছে বিক্রি করছে। তারা আরো বলেন,এভাবে বিভিন্ন কৃষকের জমির উপর পাইপ বসানোর কারণেও অনেকের জমির ফসলও নষ্ট হচ্ছে । বিষয়টি জানতে চাইলে চান্দিনা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিভীষণ কান্তি দাস জানান,বিষয়টি আপনার মাধ্যমে জানতে পেরেছি। আমি যেখানেই খবর পাচ্ছি সেখানেই ছুটে গিয়ে ড্রেজার জব্দসহ আইনগত ব্যবস্থা নিচ্ছি। এবিষয়ে আমি ব্যবস্থা গ্রহন করবো।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: