কুমিল্লার দেবিদ্বার উপজেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে এক অবসরপ্রাপ্ত স্বাস্থ্য সহকারী মারা গেছেন। তিনি দেবিদ্বার পৌর এলাকার বড় আলমপুর গ্রামের বাসিন্দা।

করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসার একদিন পর শনিবার তিনি তার নিজ বাড়িতে আইসোলেশনে থাকা অবস্থায় মারা যান। এ নিয়ে দেবিদ্বারে মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল নয়জনে। এদের মধ্যে দুইজনই মৃত্যুর আগেই জানতে পেরেছেন তারা করোনায় আক্রান্ত ছিলেন। বাকী সাতজনই মৃত্যুর পর নমুনা পরীক্ষায় তাদের করোনা পজিটিভ রিপোর্ট আসে।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত দেবিদ্বারে করোনা পজিটিভ রোগীর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১০২ জনে। এতে দেবিদ্বার উপজেলা এখন রেড জোন হিসেবে চিহ্নিত।

দেবিদ্বার উপজেলা প্রশাসন দেবিদ্বার গোমতী আবাসিক এলাকায় একই পরিবারের পাঁচজন আক্রান্তের বাসা, স্বামী-স্ত্রী দু’জন আক্রান্ত হওয়া হাসপাতাল রেডের কান্তিধারা হাউজ, বারেরা, বড়আলমপুর, সুবিল, ফতেহাবাদ, বল্লভপুর, জীবনপুর গ্রামের একজন করে আক্রান্ত হওয়াদের সাতটি বাড়ি, ১০জন আক্রান্ত হওয়া নবীয়াবাদ সম্পূর্ণ গ্রাম, রসুলপুর ইউপির ইনসাফ মার্কেট, সুবিল ইউপির ওয়াহেদপুর বাজার, ফতেহাবাদ ইউপির খলিলপুর বাজার লকডাউন করেছে।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আহাম্মদ কবীর জানান, রোববার করোনায় আক্রান্ত হয়ে পৌর এলাকার বড়আলমপুর গ্রামের এক ব্যক্তি মারা গেছেন। তার জানাজা ও দাফন নিয়মানুযায়ী সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে শনিবার দুপুরে সম্পন্ন করা হয়েছে।

সূত্রঃ ডেইলি বাংলাদেশ

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: