কুমিল্লায় অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য হত্যা মামলার আসামি গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ কুমিল্লার আদর্শ সদর উপজেলার ধনুয়াখোলা গ্রামের মৃত আবদুল জলিলের ছেলে অবসরপ্রাপ্ত সেনা সদস্য মোবারক হোসেনকে গুলি করে হত্যার ঘটনায় মো. মাছুম নামের এক আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। জেলার বরুড়া উপজেলার হরিপুর বাজার থেকে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেষ্টিগেশন (পিবিআই) তাকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারকৃত মাছুম বরুড়ার আগানগর গ্রামের শহিদ মিয়ার ছেলে। বুধবার তাকে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে প্রেরণ করা হয়।

জানা যায়, ১৯৯৮ সালে মোবারক হোসেন সেনাবাহিনীর চাকরী থেকে অবসরে আসার পর আদর্শ সদর উপজেলার ধনুয়াখোলা বাড়ির পাশর্^বর্তী বাজারে এরশাদ ট্রাভেলস ও মাতৃভান্ডার নামের দোকান দিয়ে ব্যবসা করতেন। গত ২৩ ফেব্রুয়ারি দিবাগত গভীর রাতে মুখোঁশধারী একদল দুর্বৃত্ত তার বাড়ির বসতঘরের বারান্দার গেইটের তালা কাটার সময় টের পেয়ে মোবারক হোসেন দরজা খুলে বারান্দায় আসেন। এসময় দুর্বৃত্তরা তাকে লক্ষ্য করে উপর্যুপরী কয়েক রাউন্ড গুলি করে পালিয়ে যায়। পরে কুমিল্লা সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে নেয়ার পর ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। এ ঘটনায় নিহতের ছেলে মোঃ শামীম বাদী হয়ে ২৪ ফেব্রুয়ারি কোতয়ালী মডেল থানায় অজ্ঞাতনামা দুর্বৃত্তদের বিরুদ্ধে হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরে মামলাটি পিবিআইতে হস্তান্তর করা হয়।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ও পিবিআই এর পরিদর্শক ইফতিয়ার উদ্দিন জানান, জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেফতারকৃত মো. মাছুম হত্যাকা-ের সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেছে। মাছুম জানিয়েছে- সে ও তার সঙ্গীয়রা ডাকাতির উদ্দেশ্যে মোবারক হোসেনের ঘরের বারান্দার তালা কাটছিল। এ সময় তালা কাটার শব্দে মোবারক হোসেন টের পেয়ে দরজা খুলে বাইরে এসে টর্চের আলোয় তাদের চিনে ফেলায় গুলি করে হত্যা করা হয়। এছাড়া গ্রেফতারকৃত মাছুম সংঘবদ্ধ মাদক ব্যবসায়ী চক্রের হোতা বলেও তিনি জানিয়েছেন।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ