ডেস্ক রিপোর্টঃ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অনিয়মের অভিযোগে স্থগিত হওয়া কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ শুরু হয় বুধবার সকালে। কুমিল্লা চান্দিনার ৪টি এবং মেঘনার দুটি কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ চলছে। তবে কেন্দ্রে উপস্থিতি কম থাকায় মসজিদের মাইকে ভোটারদের আসার আহ্বান জানানো হয়।

তবে ভোট কেন্দ্রগুলোতে অল্প সংখ্যাক নারী ভোটার উপস্থিত হলেও পুরুষ ভোটাদের উপস্থিতি শূন্যর কোঠায়। আর এ কারণে কেন্দ্রে উপস্থিত হয়ে ভোট দিতে মসজিদের মাইকে ভোটরদের আহ্বান করা হয়।

গত ৩১ মার্চ উপজেলা নির্বাচনে কুমিল্লা মেঘনা উপজেলার বৈধ্যনাথ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ স্থগিত করে নির্বাচন কমিশন।

বুধবার দুপুরে সরেজমিনে বৈধ্যনাথ সরকারী প্রাথমিক কেন্দ্রে গিয়ে দেখা যায়, ভোটকেন্দ্রে অল্প কয়েকজন নারী ভোটার। এ কেন্দ্রে ১৯শ ৬ জন। দুপুর পর্যন্ত ৭শ ভোট পড়লেও দুপুরের পরে কেন্দ্র একেবারে ভোটার শূন্য হয়ে পড়ে। বেলা ১২ টা থেকে ১ টা পর্যন্ত কোনো ভোটার চোখে পড়েনি।

এ সময় বৈদ্যনাথ উত্তরপাড়া জামে মসজিদের মাইকে মসজিদের পেশ ইমাম ওসমানকে মসজিদের মাইকে ভোটারদের ভোট কেন্দ্রে আসার আহবান জানাতে শুনা যায়।

জানতে চাইলে উসমান বলেন, স্থানীয় ইউপি সদস্যসহ নির্বাচনের দায়িত্বে থাকা লোকজনের অনুরোধে আমি মসজিদের মাইকে ভোটারদের ভোট কেন্দ্রে আসার আহবান জানাই।

তবে কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার সুদ্বিপ ভট্টাচার্য জানান, ধীরে সুস্থে ভোটাররা আসছে, তাই উপস্থিতি কম মনে হচ্ছে।

সূত্রঃ আমাদের সময়

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ