কুমিল্লা উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আবু কাউছার অনিকের নেতৃত্বে করোনা ভাইরাসে মৃতদেহ দাফনে জেলা ছাত্রলীগের ৪১জন নেতাকর্মীর সমন্বয়ে একটি টিম গঠন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার (১৪ মে) দেবিদ্বার উপজেলা কমপ্লেক্সের অভ্যন্তরে টিমের সদস্যদের প্রশিক্ষণ দেয়া হয়েছে। এসময় বক্তব্য রাখেন দেবিদ্বার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রাকিব হাসান, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক অর্জুন সাহা, হেলথ টেকনিশিয়ান আবু সালেহ মামুন প্রমুখ।

বিজ্ঞাপন

জানা যায়, জেলার দেবিদ্বারে এ পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছে ৬১জন এবং মৃত্যুবরণ করেছে অন্তত ৯জন। এখানে প্রতিদিনই বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। এতে প্রশাসন এ উপজেলাকে হটস্পট ঘোষণা করেছে। এদিকে এ উপজেলায় করোনায় মৃতদেহ দাফনে সংকট দেখা দিয়েছে। এ দুর্যোগ মূহুর্তে কুমিল্লা উত্তর জেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা করোনায় মৃতদেহ দাফনে এগিয়ে এসেছেন।

কুমিল্লা উত্তর জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি আবু কাউছার অনিক জানান, ‘দেবিদ্বারের এমপি রাজী মোহাম্মদ ফখরুলের নির্দেশনায় করোনা সংক্রমণে কিংবা করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা যাওয়া ব্যক্তির লাশ দাফনের জন্য জেলা ছাত্রলীগের ৪১জন নেতাকর্মীকে নিয়ে এ টিম গঠন করা হয়েছে। প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগের কর্মকর্তারা বৃহস্পতিবার বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নিয়মানুযায়ী টিমের সদস্যদের প্রশিক্ষণ দিয়েছেন। নিজেদের স্বাস্থ্য সুরক্ষার মাধ্যমে করোনায় মৃত ব্যক্তির গোসলের ব্যবস্থা, লাশ বহনের জন্য খাটিয়া, জানাজার জন্য ইমামসহ মৃতদেহ দাফনে আমাদের যাবতীয় প্রস্তুতি রয়েছে।’

দেবিদ্বার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) রাকিব হাসান জানান, ‘করোনা মহামারির এই সংকটাপন্ন সময়ে লাশ দাফনে মানবিক উদ্যোগ নিয়ে এগিয়ে আসা উত্তর জেলা ছাত্রলীগের ৪১ সদস্যের টিমকে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নীতিমালা অনুযায়ী প্রশিক্ষণ দিয়েছি এবং তাদের প্রয়োজনীয় সকল ধরণের সহায়তা প্রদান করা হবে।’