কুমিল্লায় কলেজছাত্র খুন, সন্দেহ বান্ধবীকে, গ্রেফতার ১

ডেস্ক রিপোর্টঃ কুমিল্লায় নগরীতে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে কলেজ ছাত্র শিহাব উদ্দিন অন্তুকে ছুরিকাঘাত করে হত্যা করার ঘটনায় রাকিব ওরফে লিমন নামের একজনকে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ। এদিকে অন্তু হত্যার রহস্য উদ্ঘাটনে মাঠে নেমেছে পুলিশ ব্যুরা অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

এ ঘটনার সূত্র (ক্লু) খুঁজতে ইতোমধ্যে ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও সুরতহাল রিপোর্ট পর্যবেক্ষণের পাশাপাশি নিহতের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে পিবিআই সদস্যরা কথা বলেছেন।

গ্রেফতার হওয়া লিমনের পুরো পরিচয় পাওয়া যায়নি। বুধবার (১১ জুলাই) সন্ধ্যায় লিমনকে গ্রেফতারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন থানা পুলিশ।

মঙ্গলবার (১০ জুলাই) রাতে নগরীর ধর্মসাগর পাড় এলাকায় এ খুনের ঘটনা ঘটে। নিহত কলেজ ছাত্র অন্তু জেলার বুড়িচং উপজেলার ইছাপুরা গ্রামের হুমায়ুন কবির ভূঁইয়ার ছেলে। তিনি নগরীর অজিত গুহ মহাবিদ্যালয়ের উচ্চ মাধ্যমিক বিজ্ঞান বিভাগের ২য় বর্ষের ছাত্র ছিলেন।

জানা যায়, অন্তুর বাবা-মা নগরীর রেইসকোর্স এলাকায় ভাড়া বাসায় থাকেন। অন্তু প্রতিদিনের মতো মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে কুমিল্লা নগরীর ধর্মসাগর পাড়স্থ নগর উদ্যানে গান গাইতে যান। এ সময় অজ্ঞাত দুর্বৃত্তরা তার পায়ে ও বুকে ছুরিকাঘাত করে চলে যায়। গুরুতর আহত অবস্থায় পথচারীরা তাকে উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

তবে অন্তুর মা শিরিন আক্তার জানান, সন্ধ্যায় মোবাইল ফোনে কল করে অন্তুকে বাসা থেকে ডেকে নিয়ে পরিকল্পিতভাবে খুন করা হয়েছে। ঘাতকরা অন্তুর পূর্ব পরিচিত বলে তিনি দাবি করেন।

অন্তুর পরিবারের পক্ষ থেতে ফারিয়া নামের এক মেয়ের নাম বলা হয়েছে, তাকে আটক করলে হত্যাকাণ্ডের পুরো রহস্য বেড়িয়ে আসবে বলে নিহতের মা শিরিন আক্তার দাবি করেছেন।

এদিকে বুধবার কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে ময়নাতদন্ত শেষে নিহত শিহাব উদ্দিন অন্তুরের মরদেহ বুড়িচং বিকালে উপজেলার ইছাপুরা গ্রামে তাদের পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

কোতয়ালী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু ছালাম মিয়া জানান, শিহাব উদ্দিন অন্তু হত্যাকান্ডের ঘটনায় তার বাবা হুমায়ুন কবির ভূঁইয়া বাদী হয়ে রাকিব ওরফে লিমনের নাম উল্লেখ করে অজ্ঞাতনামা কয়েকজনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। মামলার আসামি লিমনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন, ‘প্রেমঘটিত কারণে অন্তুকে হত্যা করা হয়েছে বলে প্রাথমিকভাবে মনে করা হচ্ছে। তবে এর পেছনে অন্য কোনও কারণ আছে কিনা তাও তদন্ত করে দেখছে পুলিশ।’

এদিকে কলেজ ছাত্র শিহাব উদ্দিন অন্তু হত্যার রহস্য উদ্ঘাটনে মাঠে নেমেছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। এ ঘটনার ক্লু খুঁজতে ইতোমধ্যে ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও সুরতহাল রিপোর্ট পর্যবেক্ষণের পাশাপাশি নিহতের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে পিবিআই সদস্যরা কথা বলেছেন।

পিবিআই কুমিল্লার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ওসমান গণি জানান, শিহাব উদ্দিন অন্তু হত্যার রহস্য উদ্ঘাটনে আমরা কাজ করছি। রহস্য উদ্ঘাটনে ইতোমধ্যে ঘটনাস্থল পরিদর্শন, সুরতহাল রিপোর্ট পর্যবেক্ষণ ও অন্তুর পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে কথা বলেছি।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ