কুমিল্লায় নবান্ন উৎসবে বর্ণীল আয়োজন

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ কুমিল্লা জেলা জুড়ে শুরু হয়েছে নবান্ন উৎসব। কুমিল্লা জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের আয়োজনে আদর্শ সদর উপজেলায় ৪নং আমড়াতলী ইউনিয়নের আমড়াতলী গ্রামে নবান্ন উৎসবের উদ্বোধন করা হয়। গতকাল বেলা ১১টায় নবান্ন উৎসবে জেলা প্রশাসক মো:জাহাংগীর আলম প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে কৃষকদের নিয়ে ধান কাটা, ধান মাড়াই করেন ও নতুন ধানের তৈরী পিঠা পায়েস খেয়ে নবান্ন উৎসব উদযাপন করেন। এছাড়া বিকালে নগরীতে নবান্ন উৎসব উপলক্ষে র‌্যালী ও টাউন হল মাঠে পিঠা উৎসব ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

পরে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের আয়োজনে কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলার আমড়াতলী গ্রামে নবান্ন উৎসব উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় জেলা প্রশাসক মো:জাহাংগীর আলম বলেন, কৃষিতে এখন প্রযুক্তির ছোয়া লেগেছে। সরকার কৃষকদেরকে ভর্তুকি দিয়ে আধুনিক কৃষি যন্ত্রপাতি সরবরাহ করা হচ্ছে। এতে করে সময় ও শ্রম হ্রাস পাচ্ছে ফসলের উৎপাদন বৃদ্ধি পাচ্ছে। কৃষকদেরকে নানান প্রযুক্তিগত সুবিধা প্রদান করে কৃষিকে এগিয়ে নিতে সরকার বদ্ধ পরিকর।

আলোচনা সভার শুরুতে জেলা প্রশাসকসহ অন্যান্য কর্মকর্তাগণ ও অতিথিবৃন্দ ধানী জমিতে নেমে নেমে ধান কাটেন ও ধান মাড়াইয়ে অংশ গ্রহণ করেন।

আঞ্চলিক কৃষি কর্মকর্তা দিলিপ কুমার অধিকারীর সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশ গ্রহণ করেন আর্দশ সদর উপজেলার চেয়ারম্যান এড.আমিনুল ইসলাম টুটুল, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক(সার্বিক) মো:মনিরুজ্জামান তালুকদার,আঞ্চলিক কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের প্রশিক্ষন কর্মকর্তা ড.শাহিনুল ইসলাম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার সামছুজ্জামান,উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান তারেকুর রহমান জুয়েল, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শাহনাজ আক্তার,আমড়াতলী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কাজী মোজাম্মেল হক। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন উপসহকারী কর্মকর্তা মামুনুর রশিদ। সার্বিক তত্বাবধানে ছিলেন উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা মহিউদ্দিন মজুমদারসহ আমড়াতলী ইউনিয়নের শতাধিক কৃষক। আলোচনা অনুষ্ঠানের পরে আমড়াতলী ইউনিয়ন পরিষদের আয়োজনে আমন্ত্রিত অতিথীদেরকে নতুন ধানের চাল দিয়ে তৈরী পিঠা পায়েস দিয়ে আপ্যায়িত করা হয়।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ