কুমিল্লায় ভাতিজাদের পিটুনিতে চাচার মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ কুমিল্লার সদর উপজেলার গুনানন্দি এলাকায় পূর্ব বিরোধকে কেন্দ্র করে গত ১১ই জুন সোমবার বিকে তিন ভাতিজা মিলে চাচাকে পিটিয়ে হাত-পা ভেঙ্গে দেয়।

আহত ও প্রত্যক্ষদর্শীরা সেদিনের ঘটনার বিবরণে জানায় , জেলার আদর্শ সদর উপজেলার ২ নং উত্তর দূর্গাপুর ইউনিয়নের গুনানন্দি (হাজী দোনা গাজী বাড়ী) এলাকার মৃত আনু মিয়ার ছেলে মোঃ রমিজ উদ্দিন (৬০) এর সাথে তাঁরই ভাতিজা মৃত নূরুল হকের পুত্র আবুল কালাম (৩৫), আবুল আজাদ (৩২), আনোয়ার হোসেন (৪৫) ও আনোয়ার হোসেন পুত্র আরিফ হোসেন (১৯) এর বিরোধ চলে আসছিল দীর্ঘদিন ধরে।

ঘটনার দিন দুপুরে তাঁদের মধ্যে কথা-কাটাকাটি হয়। পরে বিকেল ৪ টায় মোঃ রমিজ উদ্দিন বাড়ী থেকে বেড় হয়ে রাস্তায় এলে তার ভাতিজা আবুল কালামের নেতৃত্বে তাঁর উপর হামলা চালায় সঙ্গবদ্ধ হামলাকরীরা । এসময় ভাতিজারা তাঁকে লাঠি ও রড দিয়ে পিটিয়ে হাত-পা ভেঙ্গে দেয়। রমিজ উদ্দিনের আত্মচিৎকারে স্থানীয়রা এগিয়ে আসলে হামলাকারীরা সেখান থেকে চলে যায়। খবর পেয়ে পরে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে নাজিরা বাজার ফাঁড়ি পুলিশ।

গরুতর আহত রমিজ উদ্দিন কে উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানে তার অবস্থার অবনতি ঘটে। উন্নত চিকিৎসার জন্য পরদিনই ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় আজ শুক্রবার সকালে তার মৃত্যু হয়। নিহত রমিজ উদ্দিনের লাশ আজ বিকেলে তারা বাড়িতে নিয়ে আসা হয়। ঘটনার পর থেকে জড়িত হত্যাকারী আসামীরা পলাতক রয়েছে।

এবিষয়ে নাজিরা বাজার ফাঁড়ির ইন্সপেক্টর মাহমুদ হাছান রুবেল বলেন, আহত রমিজ উদ্দিন চিকিৎসাধীন অবস্থায় নিহত হয়েছেন বলে শুনেছেন তিনি। ঘটনার সাথে জড়িত আসামীদের ধরতে পুলিশ সচেষ্ট রয়েছে। বর্তমানে আসামীরা পলাতক রয়েছে ।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ