কুমিল্লায় স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের মানববন্ধন

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ,শিক্ষক কর্মচারীদের ৫% ইনক্রিমেন্ট প্রদান, বৈশাখী ভাতা ও পূর্ণাঙ্গ উৎসব ভাতা প্রদানের দাবিতে এবং কেন্দ্রিয় সভাপতি অধ্যক্ষ শাহাজাহান আলম সাজুকে প্রাণনাশের হুমকীর প্রতিবাদে কুমিল্লায় মানববন্ধন করেছে স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদ (স্বাশিপ)। বুধবার সকাল ৯ টা থেকে ১০ টায় পর্যন্ত এক ঘন্টাব্যাপি কুমিল্লা কান্দিরপাড় টাউন হলের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদ ( স্বাশিপ) কুমিল্লা জেলা শাখার উদ্যেগে আয়োজিত এ কর্মসূচিতে বিপুল সংখ্যক সাধারন শিক্ষক অংশ গ্রহণ করেন।

মানববন্ধনে কর্মসূচিতে সভাপতিত্ব করেন স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদ (স্বাশিপ) কুমিল্লা জেলা শাখার সভাপতি অধ্যক্ষ মজিবুর রহমান। বক্তব্য রাখেন স্বাশিপ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আগানগর ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ মো: শরিফুল ইসলাম,জেলা স্বাশিপ এর সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক সৈয়দ ইব্রাহিম হোসেন,সাংগঠনিক সম্পাদক অধ্যাপক মো: মিজানুর রহামান,বিশেষ সংগঠক অধ্যাপক রতিন্দ্র কুমার পাল খোকন,অধ্যাপক মো.রুহুল আমিন,প্রধান শিক্ষক মো.সামছুল হক প্রমুখ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন জেলা শাখার যুগ্ম সম্পাদক অধ্যাপক জিয়াউল ইসলাম জীবন প্রমুখ।

এসময় বক্তারা বলেন,জাতীরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যুদ্ধ বিধ্বস্ত দেশে ধ্বংসস্তুপের উপর দাড়িয়ে ৩৭ হাজার প্রাথমিক বিদ্যালয়কে জাতীয়করণ করেছিলেন। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শিক্ষা ব্যবস্থায় ব্যাপক পরিবর্তন এনেছেন। বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা ২৬ হাজার রেজিষ্টার প্রাথমিক বিদ্যালয়কে জাতীয়করণ করেছেন। এছাড়া দেশের প্রতিটি উপজেলা পর্যায়ে স্কুল ও কলেজকে জাতীয়করণের উদ্যোগ নিয়েছেন। আমরা এখন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে মধ্যম আয়ের দেশে উন্নীত হয়েছি। সকল বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের জাতীয়করণ এখন সময়ের দাবি। সকল আমরা আশা করি বৈষম্য দূর করে মান সম্মত শিক্ষা নিশ্চিত করতে বঙ্গবন্ধুর সুযোগ্য কন্যা বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে এদেশের সকল প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ হবে। সকল ষড়যন্ত্র রুখতে মুক্তিযুদ্ধের সপক্ষের আমাদের ঐক্য গড়ে তুলতে হবে। বক্তারা সরকারের শীর্ষ মহলের সঙ্গে আমাদের ন্যায় সঙ্গত দাবি তুলে ধরার পাশাপাশি শিক্ষকদের নিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার আহবান জানান।

মানববন্ধন কর্মসূচিতে আরো উপস্থিত ছিলেন, সংগঠনের সিনিয়ার সহ সভাপতি অধ্যক্ষ মো: মামুন পারভেজ, হাজী আকরাম উদ্দিন স্কুল এ- কলেজের অধ্যক্ষ মীর মো: আবু তাহের, আড্ডা ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ শহিদুল আলম, বিমান বন্দর মুন্সী ফারুক আহম্মেদ কলেজের অধ্যক্ষ মো: মিজানুর রহমান,স্বাশিপ জেলা শাখার কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মো: ফখরুল ইসলাম, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক আয়েশা সিদ্দীকা, স্বাশিপ এর জেলা নেতা অধ্যাপক ফারুক আহাম্মেদ,অধ্যাপক আব্দুল হালিম মজুমদার,অধ্যাপক জামাল উদ্দিন চৌধুরী,অধ্যাপক সালমা আক্তার লাকি,অধ্যাপক ইকবাল হোসেন,অধ্যাপক এম মাসুদ আহম্মেদ,অধ্যাপক মোয়াজ্জেম হোসেন ভূইয়া,আধ্যাপক মো.সাইফুল্লাহ,অধ্যাপক আমির হোসেন,অধ্যাপক রুবিনা সরকার, অধ্যাপক শাহানা ইয়াসমিন,অধ্যাপক ফারজানা আক্তার,অধ্যাপক সালমা বেগম,অধ্যাপক জাহাঙ্গীর আলম,অধ্যাপক অলক কুমার দাস,অধ্যাপক জহর লাল দত্ত, অধ্যাপক সবুর আহম্মেদ,অধ্যাপক ভূপাল মজুমদার,অধ্যাপক চৌধুরী মরিয়ম হাশমি,অধ্যাপক এনামুল হক, অধ্যাপক আবু হানিফ, প্রধান শিক্ষক নজরুল ইসলাম,আলী আহাম্মদ,মো.মুজিবুর রহমান, আবদুল মোমেন, সফিকুল ইসলাম সহ অন্যান্য শিক্ষক নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ