কুমিল্লায় সড়কের মাঝখানে বিদ্যুতের খাম্বা, চলাচলে ভোগান্তি

ডেস্ক রিপোর্টঃ কুমিল্লা নগরীর বিভিন্ন সড়কের মাঝখানে বিদ্যুতের খুঁটি (খাম্বা) রেখেই সংস্কার কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। এতে সড়কে যানবাহন চলাচলের সময় মাঝেমধ্যে ঘটছে দুর্ঘটনা এবং পথচারীদের চলাচলের ক্ষেত্রে প্রতিনিয়ত ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। নগরীর যেসব সড়কের উপর বৈদ্যুতিক খাম্বা রয়েছে তা অবিলম্বে স্থানান্তর করে জনগণের নিরাপদ যাতায়াত নির্বিঘ্ন করার জন্য সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট দাবি জানিয়েছেন বিভিন্ন যানবাহনের চালক ও যাত্রীসহ স্থানীয় এলাকার বাসিন্দারা।

জানা যায়, ১৭৯০ সালে তত্কালীন ত্রিপুরা জেলা প্রশাসন গঠনের মধ্য দিয়ে কুমিল্লা পৌর প্রশাসনের ইতিহাস শুরু হলেও ১৮৬৪ সালের ৩০ নভেম্বর তত্কালীন পূর্ববাংলায় চতুর্থ পর্যায়ে গঠন করা হয় ৩১ হাজার ৩৬৫ জনসংখ্যার কুমিল্লা পৌরসভা। পরবর্তীতে কুমিল্লা পৌরসভা এবং এর সীমানা লাগোয়া সদর দক্ষিণ পৌরসভা বিলুপ্ত করে ২০১১ সালের ১০ জুলাই কুমিল্লা সিটি করপোরেশন প্রতিষ্ঠা করা হয়। বর্তমানে এ সিটির জনসংখ্যা প্রায় ৬ লাখ।

নগরীর বেশ কয়েকজন সিনিয়র সিটিজেন জানান, ‘সময়ের পরিক্রমায় জনসংখ্যা বৃদ্ধির পাশাপাশি মানুষের চাহিদাও অনেক বেড়েছে। কিন্তু সেই তুলনায় রাস্তাঘাট ও ড্রেনেজ ব্যবস্থার প্রসার ঘটেনি, বাড়েনি তেমন সুযোগ-সুবিধা। নগরীর ভেতরের অলিগলির সরু রাস্তায় মাত্রাতিরিক্ত রিকশা, অটোরিকশা ও ছোট-বড় যানবাহনের বেপরোয়া চলাচলের কারণে স্বাভাবিক হাঁটাচলাও দুষ্কর হয়ে পড়েছে।’

কুমিল্লা নগরীর কোটবাড়ি, কাপ্তানবাজার, ছোটরা, বিষ্ণুপুর, কালিয়াজুরি, মোগলটুলি, গাংচর, ছাতিপট্টি, উত্তর ও দক্ষিণ চর্থা, ঠাকুরপাড়াসহ বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে দেখা গেছে, এসব এলাকার কিছু কিছু রাস্তার সংস্কার কাজ হয়েছে। কিন্তু ৬ থেকে ৮-১০ ফুটের কোনো কোনো রাস্তার প্রায় মাঝখানে আবার কোথাও এক থেকে ৩ ফুট রাস্তার ভেতরে বিদ্যুতের খুঁটি রেখেই সংস্কার কাজ হয়েছে। তবে নগরীর কোটবাড়ি এলাকার বিভিন্ন স্থানের রাস্তায় এ ধরনের খুঁটি বেশ লক্ষ্য করা গেছে।

নগরীর কাপ্তান বাজার এলাকার আবদুল মান্নান, ফারুক আহমেদ, দক্ষিণ চর্থার আবুল হাসেম খন্দকার, জালাল উদ্দিন, কোটবাড়ির জাকির হোসেনসহ বেশ কয়েকটি এলাকার বাসিন্দারা জানান, অপ্রশস্ত রাস্তার প্রায় মাঝখানে ও রাস্তা দখল করা বিদ্যুতের খুঁটির কারণে দিনে-রাতে যানবাহন চলাচল করতে গিয়ে অনেক সময় দুর্ঘটনা ঘটে থাকে। এ ছাড়া রাস্তার পাশে ড্রেনের উপর ফুটপাত নির্মাণ করা হলেও বাড়ির ছাদ, সানশেড এবং কোনো কোনো স্থানে বাসা-বাড়ি ও দোকানের বর্ধিত স্থাপনার কারণে পথচারীদের হাঁটাচলা কিংবা স্বাভাবিক যাতায়াতের ক্ষেত্রে দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এতে অনেক স্থানের ফুটপাত জনগণের তেমন কোনো কাজে আসছে না। তারা রাস্তার উপর থেকে এসব খুঁটি অবিলম্বে অপসারণ করে জনগণের নিরাপদ যাতায়াত নির্বিঘ্ন করার জন্য বিদ্যুত্ বিভাগসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট দাবি জানান।

কুমিল্লা বিদ্যুত্ উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আবদুল কাদের জানান, ‘শহরের বিভিন্ন অলিগলি এলাকার রাস্তাগুলো একসময় অপ্রশস্ত (সরু) থাকা অবস্থায় বিদ্যুতের খুঁটিগুলো স্থাপন করা হয়েছিল। জনসংখ্যা বৃদ্ধিসহ সময়ের চাহিদার কারণে পর্যায়ক্রমে রাস্তাগুলো প্রসারিত করায় কোনো কোনো এলাকায় হয়ত বিদ্যুতের খুঁটি রাস্তার উপর রয়েছে। এ ছাড়া অনেক আবাসিক এলাকায় নতুন নতুন বাড়িঘর নির্মাণ হওয়ায় খুঁটির সঙ্গে এর দূরত্ব কমে গেছে। তবে এলাকাবাসী অভিযোগ করলে এ ব্যাপারে পদক্ষেপ নেওয়া হবে।’­

সূত্রঃ ইত্তেফাক

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ