ডেস্ক রিপোর্টঃ বাংলাদেশ পুলিশে ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল পদে এক চাকুরী প্রার্থীকে শারীরিক ও লিখিত পরীক্ষা ব্যতীত ৭ লাখ টাকায় নিয়োগের চুক্তি করে দুই প্রতারক চক্রের সদস্য মোঃ আরাফাত (৩৪) ও মোঃ আলাউদ্দিন (৩২)। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করে জেলা গোয়েন্দা পুলিশ।

মঙ্গলবার বিকাল ৪ টায় কুমিল্লা কোতয়ালী মডেল থানার ময়নামতি মাকের্টের কপি হাউজের সামনে নিয়োগের চুক্তি নিয়ে আলোচনা করার সময় তাদের আটক করা হয়।

আটককৃত মোঃ আরাফাত চান্দিনা উপজেলার ফতেহপুর এলাকার মৃত আয়াত আলী ছেলে, মোঃ আলাউদ্দিন একই এলাকার জসিম উদ্দিনের ছেলে।

বিষয়টি নিশ্চিত করে জেলা গোয়েন্দা শাখার এস আই মোঃ সহিদুল ইসলাম পিপিএম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানা যায় একদল প্রতারক চক্র বিভিন্ন চাকরী প্রার্থীর কাছ থেকে প্রতারণা মূলক ভাবে অর্থ আত্মসাৎ করার পরিকল্পনা করছে। এ সময় ঘটনা স্থলে তাদের আটক করা হয়। বুধবার সকাল বেলায় টাকা লেনদেনের দিন ধার্য্য করা হয়। আটকের প্রতারণার কাজে জড়িত বলে সত্যতা স্বীকার করেন। এ ঘটনায় প্রার্থীর মাতা ঘটনা কথা স্বীকার করেন। এ ঘটনায় তাদের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা গ্রহনের প্রক্রিয়া চলছে।

>>আরো পড়ুনঃ  নাঙ্গলকোটে রেল লাইনের পাশ থেকে অজ্ঞাত বৃদ্ধার লাশ উদ্ধার

উল্লেখ্য বাংলাদেশ পুলিশে ট্রেইনি রিক্রুট কনস্টেবল পদে নিয়োগের ক্ষেত্রে কোন প্রকার অনিয়ম হবে না ঘোষণা দিয়েছেন কুমিল্লা পুলিশ সুপার সৈয়দ নুরুল ইসলাম। তিনি বলেন, আমি নাগরিকদের শতভাগ আশ্বাস দিচ্ছি ১০৩ টাকার বিনিময়ে চাকরী পাবে। এ বিষয়ে কেউ প্রতারণার আশ্রয় নিলে কাউকে ছাড় দেওয়া হবে না।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ