নিজস্ব প্রতিবেদকঃ কুমিল্লা নগরীর চম্পকনগর-সাতোরা এলাকার কোল্ট স্টোরেজের বিপরীতে যুবদল নেতা হাজী আনোয়ারুল হকের মালিকানাধীন স্নেহনীড় হাউজিংয়ের একটি বাসায় জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশ অভিযান চালিয়ে বিক্রয়ের জন্য মওজুত করে রাখা বিদেশী অত্যাধুনিক দুটি শর্টগান ও একটি পিস্তল উদ্ধার করেছে। এ সময় শর্টগানের ৯০ রাউন্ড কার্তুজ, পিস্তলের ১০ রাউন্ড গুলি ও ২টি পিস্তলের ম্যাগজিন উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার ডিবির পক্ষ থেকে কোতয়ালী মডেল থানায় ৩ জনের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে মামলা দায়ের করা হলেও শুক্রবার রাতে এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ডিবি পুলিশ মামলায় অভিযুক্ত ৩ জনের কাউকে আটক করতে পারেনি।

ডিবি সূত্রে জানা যায়, চম্পকনগর-শাসনগাছা রোডের কোল্ডস্টোরেজের বিপরীতে ¯েœহনীড় হাউজিং এর ফেন্ডস টাওয়ারের ৭ম তলার ডি-ইউনিটের একটি বাসায় অবৈধ অস্ত্র রয়েছে এমন খবর পেয়ে গত বুধবার রাতে ডিবির ওসি নাছির উদ্দিন মৃধার নেতৃত্বে ডিবির এলআইসি টিমের মোহা: ইকতিয়ার উদ্দিন, এসআই পরিমল চন্দ্র দাস,এসআই নজরুল ইসলামসহ ডিবির একটি টিম অভিযান চালায়। এ সময় ওই বাসার বক্স খাটের নিচ থেকে গুলিসহ ২টি শটগান এবং একটি পিস্তল উদ্ধার করা হয়। তবে এ সময় ওই বাসার ভাড়াটিয়া সাইফুল ইসলাম ও তার অপর ২ সহযোগী ফারুক ও সাইফুল (২) কে পাওয়া যায়নি।

>>আরো পড়ুনঃ  ব্রাহ্মণপাড়ার চান্দলা গজারিয়া একতা ক্লাবের ৫ম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত

ওসি নাসির উদ্দিন মৃধা ওই বাসার ভাড়াটিয়া সাইফুলের স্ত্রী ইয়াসমিনের উদ্ধৃতি দিয়ে জানান ‘ গত বুধবার দিনে তার স্বামী সাইফুল,তার বন্ধু ওমর ফারুক ও সাইফুল বাসায় এসে কিছুক্ষণ পর বন্ধু সাইফুল ও ফারুক এবং বিকালে তার স্বামী বাহিরে চলে যায়, অস্ত্র সম্পর্কে সে কিছুই জানে না বলে জানায়।’ গৃহকর্তা সাইফুল ইসলাম প্রকাশে রমজান (৪০) জেলার বুড়িচং উপজেলা সদরের ব্যাপারী বাড়ির নিয়ত আলীর পুত্র। অপর দিকে তার বন্ধু সাইফুল (৩৫) ও ওমর ফারুকের নাম নিশ্চিত করা হলেও উভয়ের ঠিকানা গৃহকর্তার স্ত্রী নিশ্চিত করতে পারেননি। এ ঘটনায় ডিবির এলআইসি টিমের প্রধান মোহা: ইকতিয়ার উদ্দিন বাদী হয়ে বৃহস্পতিবার কোতয়ালী মডেল থানায় মামলা দায়ের করেছেন। ডিবির ওসি নাসির উদ্দিন মৃধা জানান, মামলায় অভিযুক্ত গৃহকর্তা সাইফুল, তার দুই বন্ধু ওমর ফারুক ও অপর সাইফুলকে আটক করতে ডিবির একাধিক টিম মাঠে অভিযান অব্যাহত রেখেছে, তাদের আটক করতে পারলেই অবৈধ অস্ত্রের ক্রয়-বিক্রয়ের বিষয়ে হয়তো আরও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া যেতে পারে।

>>আরো পড়ুনঃ  কুমিল্লায় ৫ হাজার ৪ শত পিস ইয়াবাসহ তিন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার

এদিকে স্থানীয় একাধিক সূত্র জানায়, কুমিল্লা দক্ষিণ জেলা যুবদলের সাধারণ সম্পাদক হাজী আনোয়ারুল হকের মালিকানাধীন স্নেহ নীড় হাউজিংটি অপধারীদের একটি স্বর্গরাজ্য। ওই হাউজিং ছাড়াও আশপাশের একাধিক বাড়িতে প্রভাবশালীদের শেল্টারে অস্ত্র, মাদকসহ নানা অসামাজিক কার্যকলাপ চলছে অবাধে। প্রতিবাদ করেও প্রতিকার না পেয়ে ইতিমধ্যে ওই হাউজিংসহ আশপাশের বাড়ির অনেক ভাড়াটিয়া বাড়ি ছেড়ে চলে গেছেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ভাড়াটিয়া ডিবির এ অভিযানের সফলতায় ধন্যবাদ জানিয়ে আরও জানান, ঘটনার রাতে হয়তো আরও একাধিক বাড়িতে অভিযান চালালে মাদক ও অবৈধ কর্মকান্ডের অনেক প্রমান পেতো ডিবি। তারা ওই হাউজিংসহ শাসনগাছা, চম্পকনগর ও সাতোরা এলাকায় অস্ত্র মাদক ও অসামাজিক কার্যকলাপ প্রতিরোধে পূনরায় ওই এলাকায় ডিবিসহ আইনপ্রয়োগকারী সংস্থার অভিযান প্রত্যাশা করেছেন।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ