কুমিল্লা নগরীতে প্রথম আক্রান্ত হলেন একজন প্রবাসী। এনিয়ে জেলায় মোট আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৯৩ জনে। তিনি কয়েকমাস আগে মালদ্বীপ থেকে এসেছেন। তার বাড়ি নগরীর রাজগঞ্জের রাজবাড়ি পুকুরের দক্ষিণ পাড়ে। সোমবার কুমিল্লা জেলার ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মো. শাহাদাত হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বিজ্ঞাপন

এই প্রথম কুমিল্লা নগরীতে করোনা রোগীর শনাক্ত হওয়ার খবর শুনে নগরবাসীর মধ্যে উৎকণ্ঠা দেখা দিয়েছে। বিভিন্নজন তার স্বজন ও মিডিয়ার লোকজনের নিকট ফোন করে খোঁজ নিচ্ছে।

কুমিল্লা সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানা যায়, সোমবার পর্যন্ত কুমিল্লা জেলায় মোট দুই হাজার ২৫২টি নমুনা পরীক্ষার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়। এর মধ্যে রিপোর্ট এসেছে এক হাজার ৫৬৯ জনের। প্রাপ্ত রিপোর্টের মধ্যে পজেটিভ হয়েছে মোট ৯৩ জনে। এই সময়ের মধ্যে মোট সুস্থ হয়েছে ২৪জন, আর মারা গেছেন চারজন।

জেলার ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. মো. শাহাদাত হোসেন জানিয়েছেন, আতংকের কোন কিছু নেই। স্বাস্থ্য বিধি মেনে চললে এবং ঘর থেকে বের না হলে আশা করি আমরা কেউ আক্রান্ত হবো না।

আদর্শ সদর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা জাকিয়া জাফরিন জানান, আক্রান্ত প্রবাসীর বাস ভবনটি আমরা লকডাউন করেছি।