কুমিল্লা মুরাদনগরে কালবৈশাখীর তাণ্ডব

মুরাদনগর সংবাদদাতাঃ কুমিল্লা মুরাদনগর উপজেলার প্রায় ১৫টি গ্রাম লন্ডভন্ড করে দিয়েছে আকস্মিক কাল বৈশাখী ঝড়ে। এতে প্রায় দেড় শতাধিক ঘরবাড়ী বিধ্বস্ত ও বিদ্যুৎতের খুটি উপড়ে পড়েছে। মুরাদনগর-ইলিয়টগঞ্জ সড়কে গাছ উপড়ে পরে যান চলাচল বন্ধ রয়েছে।

শুক্রবার দুপুরে মুরাদনগর উপজেলা দিয়ে বয়েযায়া এক কাল বৈশাখী ঝড় এ তান্ডব চালায়।

Loading...

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, দুপুরে আকস্মিক ভাবে শুরু হওয়া কাল বৈশাখী ঝড় মূহুর্তেই বিধ্বংশী রুপ ধারন করে শুরু করে তান্ডব লীলা। উপজেলার সাতমোড়া, পায়ব, ভøবদী, সয়ফুল্লাকান্দি আলীরচর, ঘোড়াশাল, নবীপুর, গকুলনগর, কুলুবাড়ী, বাখরনগরসহ আরো বেশ কয়েকটি গ্রামের প্রায় শতাধিক ঘর-বাড়ী ও সহস্রাধিক গাছ-পালা বিধ্বস্ত হয়, শুশুন্ডা ও বাখরাবাদ এলাকায় ২টি বিদ্যূতের খুটি বিধ্বস্ত হয়েছে। এর মধ্যে সাতমোড়া গ্রামেই একটি মসজিদসহ প্রায় অর্ধ শতাধিক ঘর-বাড়ী বিধ্বস্ত হয়েছে। ঝড়ে মুরাদনগর-ইলিয়টগঞ্জ সড়কের ভøবদী এলাকায় একটি মোটা গাছ উপড়ে পড়ে সড়কে সব ধরনের যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। পরে সন্ধ্যা ৭ টায় সড়কটিতে যানচলাচল সাবাভিক হয়।

সাতমোড়া গ্রামের ইসমাইল, আলী আকবর, মুর্শিদ, জামাল,রশিদ,মহসিন, সাদ্দাম,কবির,মানিক, লিল কমল, রাধা, মজিদ, জালাল, খোরশেদ আলম, সমির,বাবুল মোতালেব সহ আরো অনেকের বসত ঘর বিধ্বস্ত হয়।
কুমিল্লা পল্লী বিদ্যূৎ সমিতির কোম্পানীগঞ্জ জোনাল অফিসের ডিজিএম হাবীবুর রহমান বলেন, শুশুন্ডা ও বাখরাবাদ এলাকায় ২টি বিদ্যূতের খুটি বিধ্বস্ত হয়েছে। এছাড়ও বিভিন্নস্থানে বিদ্যূতের ক্যাবলের উপর গাছ ভেঙ্গে পড়েছে। সেগুলো মেরামতের কাজ চলছে, মেরামত শেষে বিদ্যূৎ সরবরাহ করা হবে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিতু মরিয়ম বলেন, কাল বৈশাখী ঝড়ে ক্ষতিগ্রস্তদের পূণবাসনের জন্য উপজেলা প্রশাসন থেকে সহায়তা করা হবে। মুরাদনগর-ইলিয়টগঞ্জ সড়কে যান চলাচল ও বিদ্যূৎ সরবরাহ স্বাভাবিক করতে প্রশাসন, বিদ্যূৎ কতৃপক্ষ ও স্থানীয়রা কাজ করছে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: