গ্যাস সমস্যায় বন্ধের পথে কুমিল্লার বিজয়পুরের মৃৎশিল্প

সদর দক্ষিণ প্রতিনিধিঃ দেশের গন্ডি ছাড়িয়ে বিদেশের মাটিতে স্থান করে নেয়া কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলার ঐতিহ্যবাহী বিজয়পুর মৃৎশিল্প কারখানাটি গ্যাস সংকটের কারণে বর্তমানে বন্ধ হওয়ার পথে। দীর্ঘ প্রায় ৪ বছর যাবত গ্যাস সংকটের সম্মুখিন হয়ে একাধিকবার বাখরাবাদ কর্র্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে অবগত করেও গ্যাস লাইনের কোন প্রকার উন্নতি না হওয়ায় বিজয়পুর রুদ্রপাল মৃৎশিল্প সমবায় সমিতি লিমিটেড কর্তৃপক্ষ নিরুপায় হয়ে এ সিদ্ধান্ত নিতে বাধ্য হচ্ছে।

বিজয়পুর রুদ্রপাল মৃৎশিল্প সমবায় সমিতি লিঃ এর সভাপতি তাপস কুমার পাল জানান,বিজয়পুর রুদ্রপাল মৃৎ শিল্প সমবায় সমিতি লিঃ এর মৃৎশিল্প কারখানাটি দীর্ঘ প্রায় ৪ বছর যাবৎ গ্যাস সংকটে নিমজ্জ্বিত। ২০১৭ সালের নভেম্বর মাস থেকে লাইনে গ্যাসের চাপ মোটেও নেই বললেই চলে। গ্যাস সংকটের কারণে প্রায় ১০ লক্ষ টাকার কাঁচামাল পোড়ানো যাচ্ছেনা। একদিকে যেমনিভাবে গত বছর দীর্ঘ বর্ষার কারণে ৬ মাস এ্যাঁটেল মাটি সংগ্রহ করতে না পারায় উৎপাদনে ব্যাঘাত ঘটে তেমনিভাবে বর্ষার ফলে মৃৎশিল্প পন্য বিক্রয় হ্রাস পাওয়ায় কারখানাটির বিভিন্ন কক্ষে বর্তমানে বিস্কুটিং পণ্য ভর্তি হয়ে আছে।

প্রতি মাসে নিয়মিত গ্যাসবিল বাধ্যতামূলক পরিশোধ করতে হলেও গ্যাসের অভাবে নভেম্বর মাস থেকে সনাতন পদ্ধতি অর্থাৎ লাকড়ি দিয়ে কারখানায় মজুদকৃত কাাঁচামাল পণ্য পোড়াতে হচ্ছে। সনাতন পদ্ধতি অবলম্বনের কারনে প্রতি মাসে প্রায় ১ লক্ষ টাকা অতিরিক্ত ব্যয় এবং জনবল বেশী লাগায় প্রতি মাসে উৎপাদনে প্রায় ১ লক্ষ টাকা হ্রাস পাচ্ছে। গ্যাস সংকটের কারণে প্রতি মাসে মৃৎশিল্প কারখানা কর্তৃপক্ষকে কমপক্ষে দেড় লক্ষ টাকা লোকসান গুনতে হওয়ায় বর্তমানে মৃৎশিল্প কারখানাটি স্মরণকালের সবচেয়ে বড় সংকটময় মূহুর্ত পার করছে।

গ্যাস সংকট সমাধানে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ না করলে ঐতিহ্যবাহী বিজয়পুর মৃৎশিল্প টি তার ঐতিহ্যের অস্তিত্বের সংকটে পড়বে বলে জানান বিশ্লেষকরা।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ