চান্দিনায় প্রবেশপত্র না পেয়ে পরীক্ষা দিতে পারেনি খাদিজা

নাজিম উদ্দিন ভূইয়াঃ কুমিল্লার চান্দিনায় জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) পরীক্ষার প্রবেশপত্র না পেয়ে পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করতে পারেনি খাদিজা আক্তার।

জেএসসি পরীক্ষার প্রথম দিনে কেন্দ্রে এসেও পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করতে না পেরে কেঁদে বুক ভাসিয়ে বাড়ি ফিরেছে সে। চান্দিনা সরকারি মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় পরীক্ষা কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে। খাদিজা আক্তার চান্দিনার ছায়কোট গ্রামের জহিরুল ইসলাম এর মেয়ে। সে চান্দিনা ডা. ফিরোজা পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রী।

স্কুল ছাত্রী খাদিজা আক্তার জানায়, নির্ধারিত সময়ে ফরম পূরণ করেন সে। পরীক্ষার দিন (বৃহস্পতিবার) সকাল ৯টায় বিদ্যালয়ে এসে প্রবেশপত্র চায় খাদিজা। এ সময় বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ তাকে প্রবেশপত্র দিতে পারেনি। পরবর্তীতে জানায় তার ফরম পূরণই হয়নি। এ কথা জানার পর কান্নায় ভেঙ্গে পড়ে খাদিজা আক্তার।

খবর পেয়ে তার অভিভাবকরা বিদ্যালয়ে আসলেও বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ কোন সমাধান দিতে না পারলে উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) এর নিকট স্মরণাপন্ন হয় খাদিজা। কিন্তু তাতেও সমাধান মিলেনি।

খাদিজা আরও জানায়, ফরম পূরণের সময় দুই সহপাঠি বিদ্যালয়ের প্রধান অফিস সহকারি সাইফুদ্দিন এর কাছে টাকা জমা দেয়। তাদের মধ্যে একজনের ফরম পূরণ হয় এবং প্রবেশপত্রও আসে। কিন্তু আসেনি খাদিজার প্রবেশপত্র।
বিদ্যালয়ের প্রধান অফিস সহকারি সাইফুদ্দিন জানান, আমরা যে কোন শিক্ষার্থীর টাকা জমা নিলে রশিদ প্রদান করি। কিন্তু ওই শিক্ষার্থীর টাকা জমা হয়নি।

বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক সুমিতা দাস জানান, শিক্ষার্থী খাদিজা আক্তার বলছে সে নির্ধারিত সময়ে ফরম পূরণ করেছে। কিন্তু ফরম পূরণের টাকা জমা দেওয়ার রশিদও দেখাতে পারছে না। তাহলে তার ফরম পূরণ হয় কি করে? এছাড়া যদি ২/১দিন আগে এসেও যোগাযোগ করতো তাহলেও আমরা বোর্ডের সাথে যোগাযোগ করে যে কোন একটা ব্যবস্থা নিতে পারতাম।

চান্দিনা উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) এসএম জাকারিয়া জানান, আমি বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকের সাথে যোগাযোগ করেছি। মূলত তার ফরম পূরণই হয়নি।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ