ভোলায় ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’র প্রভাবে শতাধিক ঘর বিধ্বস্ত হয়েছে। এতে আহত হয়েছেন অন্তত ২৫ জন। ঝড়ের কবলে পড়ে মেঘনার ইলিশা পয়েন্টে ২৪ জেলেসহ একটি মাছ ধরার ট্রলার ডুবে গেছে। পুলিশ ও কোষ্টগার্ড ১৪ জেলেকে উদ্ধার করলেও এখনো ১০ জন নিখোঁজ রয়েছেন।

এদিকে, রবিবার (১০ নভেম্বর) সকাল থেকেই সমগ্র জেলার উপর দিয়ে ভারী বর্ষণ ও ঝড় বয়ে গেছে। এতে বাঁধের নিচু এলাকা প্লাবিত হয়েছে। সকাল থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত জেলায় ৫০ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত হয়েছে। বৃষ্টির কারণে আমন ধানের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। ভেসে গেছে অনেকের ঘেরের মাছ।

ভোলা সদর থানার ওসি এনায়েত হোসেন জানিয়েছেন, পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সারের নেতৃত্বে মোট ৮ জন উদ্ধার হয়েছে। ট্রলারটি স্রোতে মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলায় নিয়ে গেছে। কোস্টগার্ড ডুবন্ত ট্রলারটি উদ্ধারের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। এদিকে উদ্ধারকৃত প্রত্যেকের বাড়ি চরফ্যাশনের দুলারহাট থানার নুরাবাদ ইউনিয়নে বলে জানিয়েছেন ভোলার পুলিশ সুপার সরকার মোহাম্মদ কায়সার।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে দুলারহাট থানার ওসি মিজানুর রহমান বলেন, আমাদের এখান থেকে প্রায় ১০০ কিলোমিটার দূরে ট্রলারটি ডুবেছে। ভোলা সদর থানা এবং কোস্টগার্ড উদ্ধারের চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। আপনি সেখান থেকে তথ্য সংগ্রহ করতে পারবেন। তবে ডুবে যাওয়া ট্রলার মালিকের বাড়ি চরফ্যাশনে।