ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম বলছেন, আমার সততার কমতি নেই কিন্তু অভিজ্ঞতার কমতি আছে। ডেঙ্গু রোগের জন্য অবশ্যই আমি মনে করি ৩৬৫ দিনই গবেষণা করতে হবে। এটা সৃজনী না। এটা যে কোন সময় আসতে পারে। তাই এটি নিয়ে জাতীয়ভাবে একটি গবেষণা কেন্দ্র তৈরি করা দরকার।

বৃহস্পতিবার (১ আগস্ট) দুপুরে সচিবালয়ে ডেঙ্গু নিয়ে এক আন্ত-মন্ত্রণালয় সভার শুরুতে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, গত সোমবার দিন সরকারের একটি উচ্চপর্যায়ের মিটিং হয়। মিটিংয়ে দেখা যায়, ঔষধ আমদানির ক্ষেত্রে কিছু কিছু জটিলতা ছিল। যেমন সারাবিশ্বে অনেক উন্নত ঔষধ আবিষ্কার হয়েছে। কিন্তু ২০১৫ সাল থেকে সেগুলো আমদানি বন্ধ ছিল। তবে যত ধরনের সমস্যা ছিল সেগুলো মিটিংয়ে সমাধান হয়ে গেছে। এখন রেজিস্ট্রেশন করা যে কেউ সে ঔষধ আনতে পারবে।

মেয়র বলেন, কলকাতায় ডেঙ্গু নিয়ে যিনি কাজ করেছেন তার নাম অনীক ঘোষ। আমি ওনাকে ফোন করেছিলাম। উনি বলেছিল, তাড়াতাড়ি আমাকে ইনভাইটেশন পাঠান। আমি ইনভাইটেশন পাঠিয়ে দিয়েছি।

তিনি জানান, আগামী রোববার অনীক ঘোষ বাংলাদেশে আসবেন বলে কথা দিয়েছেন। আমি তাকে বলেছি, তোমাদের যা যা অভিজ্ঞতা আছে তা আমাদের সঙ্গে শেয়ার করো।

তিনি আরও বলেন, ঔষধ নিয়ে কিছু কথা এসেছে। উত্তর সিটি কর্পোরেশনে যে চালানটি এসেছিল পরীক্ষার পরে আমরা দেখেছি, ঔষধগুলো কার্যকর নয়। এরপর ঔষধের ওই কোম্পানিকে আমরা কালো তালিকাভুক্ত করেছি। ওই ঔষধের চালানটিও বাতিল করা হয়েছে।