সারাদেশে যখন করোনা বিস্তার রোধে সরকার নানা পদক্ষেপ নিচ্ছে তখন বসে নেই হাইওয়ে পুলিশ সদস্যরাও। তেমনি কুমিল্লা ময়নামতি ক্রসিং হাইওয়ে থানা পুলিশের সদস্যরাও জীবনের ঝুঁকি নিয়ে গতকাল রোববার সকাল থেকে দেশের প্রধার জাতীয় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের ৪৩ কিলোমিটার অংশে কঠোর অবস্থানে রয়েছে যানচলাচল নিয়ন্ত্রণসহ অপ্রয়োজনে ঘর থেকে বের হওয়া মানুষদের ঘরে ফেরাতে মাইকিং করছে।

সরেজমিন ঘুরে জানা যায়, দেশের প্রধান জাতীয় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কটিতে এমনিতেই সবসময় যানবাহনের চাপ থাকে। সাম্প্রতিক সময়ে পৃথিবীব্যাপী করোনার প্রভাব বাড়ায় সরকার করোনার বিস্তার রোধে নানামুখী পদক্ষেপ নেয়। এরই অংশ হিসেবে যাত্রীবাহী যানচলাচল বন্ধ করে দেয়। তবে পন্যবাহী যানচলাচল স্বাভাবিক রাখার ঘোষনা দেয়। এদিকে যাত্রীবাহী যানচলাচল বন্ধ হলেও মানুষ নিত্য প্রয়োজনে ঘর থেকে নির্দিষ্ট গন্তব্যে পৌঁছতে এসময় পন্যবাহী গাড়িতে যাতায়াত করা শুরু করলে সরকার করোনা প্রতিরোধে পন্যবাহী ট্রাক,কাভার্ডভ্যান,লরি,কন্টেইনার বা পিক-আপ’এ যাত্রী পরিবহনে নিষেধাজ্ঞা জারী করে।

এরই অংশ হিসেবে হাইওয়ে পুলিশের কুমিল্লার ময়নামতি হাইওয়ে ক্রসিং থানা পুলিশের সদস্যরাও রাষ্ট্রীয় কাজে এগিয়ে আসে। হাইওয়ে পুলিশ সুত্র জানায়, প্রতিদিনের অন্যান্য স্বাভাবিক কাজের পাশাপাশি গতকাল রোববার সকাল থেকে ময়নামতি হাইওয়ে ক্রসিং থানা পুলিশের সদস্যরা মহাসড়কের থানার অধীন ৩৪ কিলোমিটার অংশের লালবাগ,পদুয়ারবাজার, নন্দনপুর (কোটবাড়ি বিশ্বরোড),আলেখারচর, ময়নামতি সেনানিবাস,নিমসার বাজার, চান্দিনা বাগুড় বাস ষ্ট্যান্ডসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ন স্থানে টহল দেয়া শুরু করে।

এসময় হাইওয়ে পুলিশসদস্যরা যাত্রীবাহী যানচলাচল কঠোরভাবে বন্ধছাড়া পন্যবাহী যানচলাচল স্বাভাবিক এবং পন্যবাহী যানবাহনে যাত্রী পরিবহনে কঠোর অবস্থান গ্রহন করে। হাইওয়ে পুলিশ সদস্যরা একই সময় মাইকযোগে অপ্রয়োজনে বাড়ি থেকে বের হওয়া লোকজনদের ঘরে অবস্থানের আহবান জানায়। হাইওয়ে পুলিশ সুত্র আরো জানায়,ময়নামতি থানা এলাকাধীন ৩৪ কিলোইমটার এলাকায় ৫টি টিম গঠণ করে পুলিশ দায়িত্ব পালন করছে রোববার সকাল থেকেই।

বিষয়টি জানতে চাইলে ময়নামতি হাইওয়ে ক্রসিং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাফায়েত হোসেন বলেন, হাইওয়ে পূর্বা ল (পুর্ব) কুমিল্লা’র পুলিশ সুপার নজরুল ইসলাম স্যারের নির্দেশে মহাসড়কের আমাদের থানাধীন ৩৪ কিলোমিটার অংশের কুমিল্লার সদর দক্ষিনের লালবাগ ফুটওভার ব্রীজ থেকে চান্দিনা ফুটওভারব্রীজ পর্যন্ত অংশে যাত্রীবাহী যানচলাচল বন্ধের সাথে পন্য ও ব্যক্তিগত যানবাহনে যাত্রীবহনে কঠোর অবস্থানে থেকে দায়িত্ব পালন করছি। তিনি আরো বলেন, এলক্ষ্যে জনসাধারনের মাঝে লিফলেট বিতরণ ছ্ড়াাও মাইকিং করা হচ্ছে। ব্যক্তিগত উদ্যোগে খাবার বিতরনসহ অর্থিক সাহায্য করে যাচ্ছি। অতদীতের মত দেশের যে কোন দুর্যোগ মোকাবেলায় পুলিশের অন্যান্য ইউনিটের মত হাইওয়ে পুলিশ সদস্যরা নিয়োজিত থাকবে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: