তিতাসে পারভেজ সরকারের রাজকীয় প্রত্যাবর্তন

হালিম সৈকতঃ কুমিল্লার তিতাস উপজেলার চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী, তিতাস উপজেলার প্রথম চেয়ারম্যান ও জেলা আ’লীগের সদস্য মো: পারভেজ হোসেন সরকার সকল জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে অবশেষে তিতাসের মাটিতে পা রাখলেন। দীর্ঘ দুই বছর পর তিনি তিতাসে ফিরে আসলেন। এতে তার অনুসারী ও নেতাকর্মীদের মাঝে ফিরে এসেছে প্রাণ চাঞ্চল্য।

গত কয়েক দিন ধরে তিতাসে এই নিয়ে চলেছে আলোচনা সমালোচনা। কি জানি কি হয়? ভয় আতঙ্কও কাজ করেছে মানুষের মাঝে। কারণ তিতাসে সোহেল সিকদার ও পারভেজ সরকার গ্রুপের মাঝে রয়েছে সাপে নেউলে সম্পর্ক। কখন দুই গ্রুপের মাঝে সংঘর্ষ সৃষ্টি হয় সেই অজানা আতঙ্কে ছিল সাধারণ জনগণ। কিন্তু সকল ভয়ের অবসান ঘটেছে আজ। সোহেল সিকদার গ্রুপ আজ সহনশীলতার পরিচয় দিয়েছেন। সাধারণ মানুষ থেকে কেটে গেছে আতঙ্ক। এখন সাধারণ মানুষ চায় শান্তিপূর্ণ ভোট। তারা চায় তাদের ভোটের অধিকার।

পারভেজ সরকার সকাল ১২ টায় আসার কথা থাকলেও যানজটের কারণে তিনি এসে পৌছান বিকাল সাড়ে চারটায়।

তিনি বাতাকান্দি আসার পর পরই নেতাকর্মীদের মাঝে বইতে থাকে আনন্দের ফোয়ারা। প্রিয় নেতাকে ফুল দিয়ে বরণ নেন উপস্থিত জনতা।
সকাল ১০ টা থেকেই তারা অধীর আগ্রহ নিয়ে বসেছিলেন রাস্তার মোড়ে মোড়ে।

কোন প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে তিতাসে টহল দিয়েছিল র্যাব, ডিবি ও পুলিশসহ আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যরা। এ সময় নেতাকর্মীদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বলরামপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো: নুর নবী, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফরহাদ আহমেদ ফকির, যুবলীগ নেতা ইব্রাহিম সরকার, চেয়ারম্যান মুজিবুর রহমান, আবুল হোসেন মোল্লা, তিতাস উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি সাদ্দাম হোসেন, সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম, যুবলীগ নেতা মোফাজ্জল হোসেন ও স্বেচ্ছাসেবক লীগ নেতা বিল্লাল হোসেন ও মামুন মোল্লা প্রমুখ।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ