দাউদকান্দিতে স্বর্নের দোকানে ডাকাতি

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ কুমিল্লার দাউদকান্দির সুন্দলপুর বাজারে মঙ্গলবার গভীর রাতে ৭/৮ জনের মুখোশ পরিহিত একদল ডাকাত বাজারের দু’নৈশ প্রহরীকে বেঁধে মা জুয়েলার্স নামের একটি স্বর্নের দোকানের কলাপসিবলগেট কেটে সাটার ভেঙ্গে নগদ ২০ হাজার টাকা,১’শ ৩০ ভরি স্বর্নালংকার,শতাধিক ভরি রূপাসহ লোহার তৈরী লকারটি নিয়ে পালিয়ে যায়। গতকাল বুধবার সকালে দাউদকান্দির ইলিয়টগঞ্জ সংলগ্ন ছাপ্রা গ্রামের রাস্তার পাশে হাত-পা বাধাঁ ও মুখে প্লাস্টিকের টেপ লাগানো অবস্থায় পথচারীরা তাদের দেখে পুলিশে খবর দিলে তাদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।

স্থানীয় বিভিন্ন সুত্রে জানা যায়,জেলার দাউদকান্দি উপজেলার সুন্দলপুর ইউনিয়নের সুন্দলপুর বাজারে মঙ্গলবার রাত আনুমানিক আড়াইটায় ৭/৮ জনের একদল মুখোশ পরিহিত ডাকাত হানা দেয়। প্রথমে ডাকাতরা বাজারের দু’নৈশ প্রহরী সোলায়মান (৬৫) ও তৌহিদ (৪০)কে জীম্মি করে হাত-পা বেধেঁ মুখে টেপ লাগিয়ে তাদেও গাড়িতে তুলে নেয়। পরে মা জুয়েলার্স নামের একটি স্বর্নের দোকানের কলাপসিবল গেটের তালা কেটে সাটার ভেঙ্গে দোকানে প্রবেশ করে। এসময় দোকানে থাকা নগদ ২০ হাজার টাকা,১’শ ৩০ ভরি স্বর্ন,এক’শ ভরি রূপাসহ দোকানে থাকার লোহার তৈরী সেফটি লকারটিও নিয়ে যায়। গতকাল বুধবার সকালে পথচারীরা দাউদকান্দিও ইলিয়টগঞ্জ সংলগ্ন ছা গ্রামের রাস্তার পাশে হাত-পা বাধাঁ দু’ব্যক্তিকে পড়ে থাকতে দেখে ইলিয়টগঞ্জ হাইওয়ে ফাঁড়িকে জানায়। বিষয়টি হাইওয়ে ফাঁড়ি থেকে দাউদকান্দি থানাকে জানালে পুলিশ তাদের উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়। স্থানীয় সুত্র জানায়,পুলিশ পরবর্তীতে সুন্দলপুর বাজারে নৈশ প্রহরীর দায়িত্বে থাকা আরো ৩ জন দুদ মিয়া,নাজির মিয়া,রঞ্জিত বণিককে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটকে থানায় নিয়ে যায়।

এদিকে মা জুয়েলার্সের মালিক কমল বণিকের সাথে মোবাইল ফোনে কথা হলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান,বুধবার অজ্ঞাতনামা ৮ জনের বিরুদ্ধে দাউদকান্দি থানায় মামলা রুজু হয়েছে। তিনি আরো বলেন,লুট হওয়া স্বর্নের মূল্য প্রায় অর্ধ কোটি টাকা। দাউদকান্দি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিজানুর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান,মামলা হয়েছে। এখনো কাউকে আটক করা হয়নি। । এদিকে মা জুয়েলার্সেও মালিক কমল বণিকের সাথে মোবাইল ফোনে কথা হলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান,বুধবার অজ্ঞাতনামা ৮ জনের বিরুদ্ধে দাউদকান্দি থানায় মামলা রুজু হয়েছে।