দাউদকান্দি ইলিয়টগঞ্জে স্কুল ছাত্রকে কুপিয়ে আহত

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ গতকাল ৬মে রবিবার সন্ধা ৭টায় কুমিল্লা জেলার দাউদকান্দি উপজেলার ইলিয়টগঞ্জ বাজারে ফারুক হোসেন (১৬) নামের এক ছাত্রকে প্রকাশ্যে ধারালো ছুরিকাঘাতে গুরতর আহত করে পালিয়ে যায়।ধারালো ছুরিকাঘাতের ফলে ফারুকের পেটের বুড়ি বাহির হয়ে যায়। আহত ফারুক হোসেন ইলিয়টগঞ্জ রাজেন্দ্র বিশ্বনাথ উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেনীর ছাত্র।

স্থানীয়রা এসে গুরতর আহত ফারুক কে উদ্ধার করে, স্থানীয় একটি হাসপাতালে নিলে তার অবস্থা অবনতি হলে কর্তব্যরত চিকিসকরা তাকে উন্নত চিকিসসার জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতলে চিকিসকরা জানান তার পেটের বুড়ি ও কেটে যায়। এতে তার অতিরিক্ত রক্ত থরন হয়েছে। তার অবস্থা আরো অবনতি হলে তাকে আজ আইসিইউতে ভর্তি করানো হয়। স্থানীয় সুত্রে জানায়, একই দিনে ফারুকের চাচাতু ভাই সাইদ এর সাথে একই উপজেলার সুহিলপুর গ্রামের মোস্তাক মিয়ার ছেলে সাকিলের সাথে ঝগড়া হয়। ঝগড়ার বিষয়টা সাইদের জেটাতু ভাই ফারুক তাকে জানালে, সে তাকে নিয়ে ছুরিকাঘাত কারি সাকিল এর বাবা মোস্তাক মিয়া বাজারের আলো ব্যাবসায়ী কাছে নালিশ করে আপনার ছেলে কেন কোন অপরাধ ছাড়াই তাকে মারলো। আমাদের কাছে বিচার দিলে আমরা তার বিচার করতাম। এনিয়ে এক পর্যায় তাদের মধ্যে বাকবিতন্ডা হলে মোস্তাক মিয়া তার ছেলেপেলে নিয়ে তাদের উপর ঝাপিয়ে পরে। এসময় মোস্তাক মিয়ার ছেলে সাকিল ফারুকের পেটে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। ছুরিকাঘাতের ফলে ফারুকের পেটের বুড়ি বাহির হয়ে যায়। তার অবস্থা এখন আশন্কাজনক।

ফারুক হোসেন চান্দিনা উপজেলার সব্দলপুর গ্রামের মৃত আব্দুল খালেকের ছেলে। আহত ফারুক হোসেনের মা হোসনেয়ারা বেগম বাদি হয়ে দাউদকান্দি মডেল থানায় মামলা দায়ের করেন।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: