হালিম সৈকত।।
দীর্ঘ ৬ মাসেরও বেশি সময় কারাগারে থাকার পর অবশেষে জামিনে মুক্ত হলেন তিতাস উপজেলা আ’লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান মোঃ শাহিনুল ইসলাম সোহেল সিকদার।

২৬ সেপ্টেম্বর সকালে তিনি কুমিল্লা কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে মুক্ত হন। এ সময় নেতাকর্মীরা তাকে জড়িয়ে ধরে আবেগআপ্লুত হয়ে পড়েন। দীর্ঘদিন পর প্রিয় নেতাকে কাছে পেয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন অনেকে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন তিতাস উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সভাপতি নিজাম সিকদার, কলাকান্দি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও আ’লীগের সভাপতি হাবিবুল্লাহ বাহার, তিতাস উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহ্বায়ক নুর মোহাম্মদ লালন সিকদারসহ বিভিন্ন স্তরের নেতৃবৃন্দ।

উল্লেখ্য গত ৩১ মার্চ স্থগিত হওয়া নির্বাচনে সোহেল সিকদার নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বাচন
করেছিলেন কিন্তু ভোট কারচুপি ও নানা অনিয়মের কারণে নির্বাচন স্থগিত করেন নির্বাচন কমিশন। এর কিছু দিন পর মামলাজনিত কারণে জেলা গোয়েন্দা পুলিশের হাতে ঢাকা থেকে গ্রেফতার হন সোহেল সিকদার। কারাগারে থাকার কারণে আসন্ন ২১ শে অক্টোবরের নির্বাচনে তিনি অংশগ্রহণ করেতে পারছেন না। সোহেল সিকদারের ছোট ভাই নুর মোহাম্মদ লালন সিকদার বলেন, আল্লাহর কাছে অশেষ কৃতজ্ঞতা জানাই এবং সেই সাথে তিতাস হোমনার অভিভাবক কুমিল্লা ২ আসনের সংসদ সদস্য সিআইপি সেলিমা আহমাদ মেরী’র প্রতিও জানাই কৃতজ্ঞতা। যারা আমাদের কর্মী সমর্থক দিন রাত পরিশ্রম করেছেন এবং নির্যাতনের স্বীকার হয়েছেন তাদের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছি।

সোহেল সিকদারের মুক্ত হওয়ার মাধ্যমে নেতাকর্মীদের দীর্ঘদিনের প্রতীক্ষার অবসান হলো।।