দুবাই স্টেডিয়ামে কুমিল্লার প্রবাসীরা !

ডেস্ক রিপোর্টঃ এ যেন ঠিক এক টুকরো বাংলাদেশ। লাল সবুজের পতাকা, হাতে টাইগার রেপ্লিকা, নানান রকম প্ল্যাকার্ড। সবার মুখেই বাংলাদেশ, বাংলাদেশ স্লোগান। সেই সাথে স্টেডিয়াম মাতাচ্ছে কুমিল্লার প্রবাসীরা।কেউ এসেছেন আজমান থেকে, কেউ আলাইন, কেউ আবুধাবি, আবার কেউবা থাকেন দুবাইতেই। বাংলাদেশের খেলা দেখতে প্রায় সবাইকে কাজ থেকে ছুটি নিতে হয়েছে।

ভিড়ভাট্টার মধ্যে জনাকয়েক শ্রীলঙ্কানও আছেন। তবে দুবাই আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে দর্শক সমর্থনে বাংলাদেশই অনেক এগিয়ে। এর আগে দুবাইতে কখনো খেলেনি বাংলাদেশ। দুবাইর লাগোয়া শহর শারজাহতে সর্বশেষ খেলেছে ২৩ বছর আগে। সেই ১৯৯৫ সালে সেবার এশিয়া কাপ খেলতেই এখানে এসেছিল বাংলাদেশ। প্রথমবার খেলেছিল আরও পাঁচ বছর আগে, ১৯৯০ সালে অস্ট্রেলেশিয়া কাপে শারজাহতেই নেমেছিল বাংলাদেশ।

তবে ২৩ বছর আগের বাংলাদেশ আর এখানকার বাংলাদেশের মধ্যে বিস্তর পার্থক্য। সর্বশেষ তিন এশিয়া কাপের দুইটাতেই ফাইনাল খেলা বাংলাদেশের কাছে ভক্তদের প্রত্যাশাও অনেক বেশি।

খেলা দেখতে এসেছেন কুমিল্লার আহসান উল্লাহ রানা ও মামুন। তারা জানান, এই খেলা দেখার জন্য এক মাস আগে থেকে পরিকল্পনা করে রেখেছিলেন তিনি। কাজের জায়গা থেকে ছুটি পেতে বেশ বেগ পেতে হয়েছে। তবু বাংলাদেশের খেলা দেখবেন বলে বুদ্ধি করে সব সামলে সময় বের করেছেন। একই বক্তব্য আরও অনেকের।

তবে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে খেলার শুরুতেই বিপর্যয়ে পড়েছে বাংলাদেশ। প্রথম ওভারে কোন রান না করেই ফিরে যান লিটন দাস ও সাকিব আল হাসান। ১ রানেই তাই ২ উইকেট হারায় বাংলাদেশ। পরের ওভারের শেষ বলে হাতে চোট পেয়ে বেরিয়ে গেছেন তামিম ইকবাল।

বিপর্যয় সামাল দিতে লড়ে যাচ্ছেন মুশফিকুর রহিম ও মোহাম্মদ মিঠুন। তাদের নেওয়া প্রতি রানের সঙ্গেই উল্লাস করে সমর্থন জানাচ্ছেন দর্শকরা।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ