দেবপুর পুলিশ ফাঁড়ির হস্তক্ষেপে স্কুল ছাত্রীর বাল্য বিয়ে বন্ধ

বুড়িচং প্রতিনিধিঃ কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার ময়নামতি ইউনিয়নের শরীফপুর গ্রামের সপ্তম শ্রেণীর এক নাবালিকা ছাত্রী (ছদ্ম নাম, তন্নী) র গত বুধবার রাতে আনুষ্ঠানিকভাবে একই গ্রামের পাত্রের সঙ্গে বিয়ের আয়োজন করা হয়।

খবর পেয়ে বুড়িচং থানাধীন দেবপুর ফাঁড়ি পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে নাবালিকার বাল্য বিয়ে বন্ধ করে দেন। দেবপুর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ইন্সপেক্টর আবু ইউসুফ ফসিউজ্জামান জানান গত বুধবার রাতে উপজেলার শরীফপুর গ্রামের জাহাঙ্গীর আলমের স্থানীয় জহুরা খাতুন আইডিয়াল স্কুলের সপ্তম শ্রেণী পড়–য়া নাবালিকা কন্যা (১২) সঙ্গে একই গ্রামের জামাল হোসেনের ছেলে শাকিবের আনুষ্ঠানিকভাবে বিয়ের আয়োজন প্রায় সম্পন্ন। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে বুড়িচং থানাধীন দেবপুর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ, ইন্সপেক্টর, আবু ইউসুফ ফসিউজ্জামান, এসআই/মোঃ শফিকুল ইসলাম সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে গিয়ে নাবালিকা মেয়ে ও তার আত্নীয় স্বজনদেরকে বিয়ের ব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদ করিলে তারা বিয়ের সত্যতা স্বীকার করেন। একপর্যায়ে পুলিশ তাদেরকে নাবালিকা মেয়ে বিয়ে দেওয়া আইনত দন্ডনীয় অপরাধ বুঝাতে সক্ষম হলে তারা বিয়ের আয়োজন বন্ধ করে দেন। পরে তারা পুলিশের নিকট মুচলেকা দেন নাবালিকা মেয়ে বিয়ে দেবেন না। যদি দেওয়া হয় তাহালে পুলিশ আইনগত ব্যবস্থা নিতে পারবেন।

Loading...

পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে পাত্র শাকিব ও তার পিতা এবং আত্নীয় স্বজন পালিয়ে যায়।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: