কুমিল্লার নাঙ্গলকোটে সোমবার শারমিন আক্তার নামের এক কিশোরীর রহস্য জনক মৃত্যু হয়েছে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে।

নিহত ওই কিশোরী উপজেলার দৌলখাঁড় ইউপির ভোলাকোট গ্রামের অহিদুর রহমানের মেয়ে। নিহতের পিতা অহিদুর রহমান বলেন, দুপুর ১২টার দিকে শারমিন বমি করতে ছিল। তখন তড়িঘড়ি করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে দায়িত্বরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাক্তার খায়ের মোহাম্মদ সোবহান অনিক বলেন, হাসপাতালে নিয়ে আসার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে।

নাঙ্গলকোট থানার উপ- পরিদর্শক মুহাম্মদ আনোয়ার হোসেন খন্দকার বলেন, খবর পেয়ে হাসপাতালে গিয়ে লাশ উদ্ধার করি । নিহতের পিতা বাদী হয়ে থানায় অপমৃত্যু মামলা দায়ের করেছে। প্রাথমিক ভাবে ধারনা করা হচ্ছে কিশোরী বিষ পানে আত্মহত্যা করতে পারে। তারপর ও সঠিক কারন জানা যাবে ময়নাতদন্তের রিপোর্টের পর।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: