আগামী ১৬ মে শেষ হচ্ছে ষষ্ঠ দফায় সাধারণ ছুটির মেয়াদ। তবে সপ্তম দফায় এই সাধারণ ছুটির মেয়াদ পারতে পারে। তবে এখন পর্যন্ত এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী দপ্তর থেকে কোন সিদ্ধান্ত আসেনি। ১৬ মে ষষ্ঠ দফার ছুটি শেষে ১৭ মে থেকে ২০ মে চারদিন আছে কর্ম দিবস। তারপর ২১ মে শবে কদরের বন্ধ। পরের দুই দিন সাপ্তাহিক ছুটি। এরপরেই ঈদের ছুটি ২৬ মে পর্যন্ত। সেদিক বিবেচনা করে ঈদের ছুটির সাথে সমন্বয় করে সাধারণ ছুটি বাড়ানো হতে পারে বলে জানা গেছে।

বিজ্ঞাপন

এদিকে করোনা ভাইরাস সংক্রমণের প্রাদুর্ভাব চলতি মাসেই সর্বোচ্চ পর্যায়ে উঠেছে। সোমবার (১১ মে) স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানিয়েছে, একদিনে দেশে সর্বোচ্চ ১০৩৪ জন রোগীর করোনা শনাক্ত হয়েছে। বিশেষজ্ঞরা আশঙ্কা করেছেন এর সংক্যা আরও বাড়তে পারে। এই পরিস্থিতিতে চলতি মাসে সাধারণ মানুষকে ঘরে থাকার জন্য বারবার আহ্বান জানাচ্ছেন জনস্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা এবং স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। সরকারের বিভিন্ন মহল থেকে বিষয়টি পর্যবেক্ষণ করা হচ্ছে। এই অবস্থায় সাধারণ ছুটির মেয়াদ আপাতত ঈদের ছুটির সঙ্গে যুক্ত করেন ২৬ মে পর্যন্ত বাড়তে পারে। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় একাধিক সূত্র জানিয়েছে, ২৭ ও ২৮ মে দুদিন দুদিন কর্মদিবস এর পরপরই ২৯ ও ৩০ মে সাপ্তাহিক ছুটি। সার্বিক বিষয় বিবেচনা করে সরকার হয়তো ৩০ মে পর্যন্ত ছুটি ঘোষণা করতে পারে।

জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো. ফরহাদ হোসেন গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, এখন পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর থেকে ছুটির বিষয়ে কোনো নির্দেশনা পাননি। তবে সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় ছুটির মেয়াদ বাড়তে পারে বলে তিনি মনে করেন। তিনি জানান, এ বিষয়ে দু-একদিনের মধ্যেই সিদ্ধান্ত আসতে পারে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় থেকে।