বাঁচতে চায় অসহায় আবদুর রহমান

হালিম সৈকতঃ বাঁচতে চায় অসহায় আবদুর রহমান। আবদুর রহমান কুমিল্লা জেলার মনোহরগঞ্জ উপজেলার ১০নং নাথেরপেটুয়া ইউনিয়নের হতদরিদ্র মফিজ মিয়ার বড় ছেলে।

জটিল রোগে ইতোমধ্যে তাঁর একটি পা কেটে ফেলতে হয়েছে। দীর্ঘদিন যাবত সে গ্যাংগ্রিন রোগে আক্রান্ত হয়ে জীবন মরণের সন্ধিক্ষণে দাড়িয়ে আছে। বাঁচার জন্য চিকিৎসা করাতে গিয়ে সহায় সম্বল হারিয়ে বর্তমানে সে নিঃস্ব। দুরারোগ্য এই ব্যাধিটি তার একটি পা কেড়ে নিলেও অপর পা নিয়ে কোন রকমে বেঁচে আছে। কিন্তু ডাক্তারের পরামর্শ অতি দ্রুত যদি অপর পা টির চিকিৎসা করানো না হয় সেটিও কেটে ফেলতে হবে। এই চিকিৎসা অবশ্যই ভারতে কিংবা দেশের বাইরে নিয়ে গিয়ে করাতে হবে। সে জন্য খরচ হতে পারে আনুমানিক ৩ লক্ষ টাকার অধিক। কিন্তু নিরীহ আ: রহমানের পক্ষে চিকিৎসার এই বিশাল টাকা যোগাড় করা সম্ভব নয়। পরিবারে আয়ের উপার্জনক্ষম বলতে কেউ নেই। ছোট ছোট ৪ মেয়ে নিয়ে বড় অসহায়ভাবে ক্াঁটছে তার জীবন। কি করবে বুঝতে পারছে আ: রহমান!

আ: রহমান বলেন আমি বাঁচতে চাই। আমার পরিবারকে বাঁচান। আমার নিজের জন্য না হলেও আমার ছোট ছোট মেয়েদের ভবিষ্যতের জন্য আমি সকলের সাহায্য চাই। সমাজে যারা বিত্তবান তারা এগিয়ে আসলে ৩ লক্ষ টাকা তেমন কোন বড় অঙ্ক নয়। তাই সমাজের উচ্চবিত্তদের কাছে আকুল আবেদন অসহায় এই পরিবারের জন্য এগিয়ে আসুন। মানবতার দৃষ্টান্ত স্থাপন করুন।

চিকিৎসার জন্য আ: রহমানের কাছে অর্থ সহায়তা পাঠানোর বিকাশ নম্বর ০১৮৫৩৪১৮৭১৩। নিজে দিতে পারেন কিংবা প্রবাসীসহ বন্ধু বান্ধবদের থেকে সংগ্রহ করে পাঠাতে পারেন। আপনার একটু সহায়তায় বেঁচে যাবে একটি প্রাণ ও একটি পরিবার। আসুন আমরা সকলে এই মহৎ কর্মে এগিয়ে আসি। বিপদ যে কোন মুহুর্তে আমার/আপনারও হতে পারে। তাই আর চুপ নয় চলুন এগিয়ে যাই মানবতার দূত হয়ে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ