বিএনপি মানে হলো বাংলাদেশ লাউ পাকিস্তান বলে মন্তব্য করেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী। তিনি বলেন, বিএনপির প্রতক্ষ্য মদদেই জঙ্গিবাদ মাথা চাড়া দিয়ে ছিলো ১৫ আগস্ট জাতির পিতাকে স্বপরিবারে হত্যার মধ্যদিয়ে ষড়যন্ত্রকারীদের উত্থান হয়েছিল, এরই ধারাবাহিকতায় ছিলো ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলা। তাই চক্রান্তকারীদের দাঁত ভাঙা জবাব দিতে হবে।

মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) দুপুরে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়াস ইন্সটিটিউটে, রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনাকে হত্যার উদ্দেশ্যে ২১ আগস্টের গ্রেনেড হামলার স্বরণে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য বেগম মুতিয়া চৌধুরী।

এদিকে যুবলীগের চেয়ারম্যান ফারুক বলেন বলেন, বিদেশিদের সাথে যোগসাজশে ষড়যন্ত্র করে দেশ ধ্বংসের চক্রান্ত বিএনপি-জামায়াতের রাজনীতির মতোই পরাজিত হবে।

আলোচনা সভায় অংশ নিয়ে আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশীদ বলেন, দেশ যখন এগিয়ে চলেছে উন্নয়নের নৌকায় পাল তুলে তখন বিএনপি-জামায়াত জোট তাদের ষড়যন্ত্রের ধারাবাহিকতা অব্যাহত রেখেছে। হত্যাকারীরা সফল হলে বাংলাদেশ কালো ছায়ায় ঢেকে যাবে তাই সকল ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করেই আমাদের এগিয়ে যেতে হবে। প্রতিহত করতে হবে সব দুরভিসন্ধি আর চক্রান্ত।

আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন যুবলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য শহীদ সেরনিয়াবাত, মুজিবুর রহমান চৌধুরী, আব্দুর সাত্তার মাসুদ, মাহবুবুর রহমান হিরণ, আতাউর রহমান, শাহজাহান ভূঁইয়া মাখন, ইঞ্জিনিয়ার নিখিল গুহ, মোঃ আনোয়ার ইসলাম, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মহিউদ্দিন মহি, সুব্রত পাল, সাংগঠনিক সম্পাদক বদিউল আলম বদি, দপ্তর সম্পাদক কাজী আনিসুর রহমান ও শিক্ষা সম্পাদক মিজানুল ইসলাম মিজু, ঢাকা উত্তর যুবলীগের সভাপতি জাফর মাঈনুল হোসেন খান নিখিল, সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল হোসেন, ঢাকা দক্ষিণ যুবলীগের সহ সভাপতি মাঈনুদ্দিন রানা, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম রেজাসহ অারো অনেকে।