ডেস্ক রিপোর্টঃ সোমবার সকালে কুমিল্লার বুড়িচং থানা পুলিশ থানা সংলগ্ন টিএন্ডটি অফিসের পিছন থেকে গনেশ চন্দ্র চক্রবর্তী (৬০) নামের এক ফেরী ওয়ালার লাশ উদ্ধার করে। পরে লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরন করা হয়।

পুলিশ ও স্হানীয় সূত্র জানায় জেলার বুড়িচং উপজেলা সদরের থানা সংলগ্ন বাড়ির সত্য রঞ্জন চক্রবর্তীর ছেলে গনেশ চন্দ্র চক্রবর্তী (৬০) গত রোববার রাত ৮ টার সময় বাড়ি থেকে বের হয়ে আর ফিরে যায়নি। সকাল পৌনে ৯ টায় বুড়িচং থানার এস আই রাজিব কর খবর পান যে থানা সংলগ্ন বুড়িচং টিএন্ডটি অফিসের দক্ষিণ পাশে একটি লাশ পড়ে আছে। ঘটনা স্হলে গিয়ে সঙ্গীয় সহ লাশ উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে ময়নাতদন্তের জন্য প্রেরন করে। গনেশ চন্দ্র চক্রবর্তীর দুই ছেলে এবং স্ত্রী রয়েছে।

এব্যপারে বুড়িচং থানার এস আই রাজিব কর স্হানীয় লোকজন এবং মৃত্যু ব্যক্তির স্বজনের বরাত দিয়ে জানান গনেশ চন্দ্র চক্রবর্তী পেশায় একজন ঝাল মুড়ি৷বিক্রেতা এবং ফেরি ওয়ালা। তিনি মাদকাসক্ত ব্যক্তি ছিলেন। রোববার রাত ৮ টায় ঘর থেকে বের হয়ে আর ফিরে যায়নি। লাশের শরীরে কোন ধরনের আঘাতের চিহ্ন দেখা যায় নি। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট প্রাপ্তি সাপেক্ষে প্রকৃত কারন জানা যাবে।