বুড়িচংয়ে গণধর্ষন মামলার এক আসামী গ্রেফতার

মো. জাকির হোসেনঃ কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার রামপুর জিহান ফুটওয়্যার কারখানার এক নারী শ্রমিক (১৭) কে গণধর্ষনের ঘটনায় শুক্রবার রাতে আলাউদ্দিন নামে এক আসামীকে গ্রেফতার করেছে দেবপুর ফাঁড়ী পুলিশ।

মামলার বিবরণে জানা যায়, জেলার মুরাদনগর উপজেলার কামাল্লা গ্রামের মোঃ হারুন অর রশিদের মেয়ে (১৭) দীর্ঘদিন যাবত বুড়িচং উপজেলার দেবপুরের জিহান ফুটওয়্যার কোম্পানীতে কাজ করতো। গত ১৫ জুলাই রোববার সন্ধ্যায় সে বড় বোনের বাসা ময়নামতি সাহেব বাজার থেকে ফেরার পথে হৃদয় ও মনির নামে দুই যুবক তাকে মোটরসাইকেলের পেছনে উঠায়। পরে তাকে কৌশলে ময়নামতি ইউনিয়নস্থ শরীফপুর দক্ষিন পাড়া এলাকায় সাকুরা ষ্টিল মিলের পশ্চিমে জনৈক দুলাল ভূইয়ার পূর্ব ভিটির টিনের পরিত্যক্ত ঘরে নিয়ে যায়। সেখানে যাওয়ার পর ফোন করে হৃদয় তার আরো আলাউদ্দিনসহ অন্য আরেক বন্ধুকে ডেকে নিয়ে আসে। সেখানে ছুরি দিয়ে হত্যার ভয় দেখিয়ে হৃদয়, মনির, আলাউদ্দিনসহ আরো অজ্ঞাত একজন তাকে পালাক্রমে ধর্ষণ করে। এ ঘটনায় সোমবার রাতে হৃদয় ও মনিরের নাম উল্লেখ করে ও অজ্ঞাত আরো দু’জনের নামসহ মোট ৪ জনকে আসামী করে বুড়িচং থানায় একটি ধর্ষন মামলা দায়ের করা হয়।

দেবপুর পুলিশ ফাঁড়ীর ইনচার্জ ইন্সপেক্টর মোঃ আবু ইউসুফ ফসিউজ্জামান জানান, মামলার পর থেকেই পুলিশ আসামীদের গ্রেফতারের একাধিক অভিযান চালায়। শুক্রবার রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে খবর আসে যে, এ মামলার আসামী আলাউদ্দিন উপজেলার ময়নামতি ইউনিয়নের বিনন্দিয়ারচর এলাকায় অবস্থান করছে। এ খবরের প্রেক্ষিতে শুক্রবার রাত ৩ টায় ইন্সপেক্টর মোঃ আবু ইউসুফ ফসিউজ্জামানের নেতৃত্বে এস আই শাহাদাত হোসেন সঙ্গীয় ফোর্সসহ অভিযান চালিয়ে আসামী আলাউদ্দিনকে গ্রেফতার করে। সে উপজেলার ময়নামতি ইউনিয়নের কাচারীতলা (মীরবাড়ীর) দুলু মীরের পুত্র। পুলিশ আটককৃত আসামীকে গতকাল শনিবার কুমিল্লা বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করেছেন।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ