বুড়িচংয়ে গলায় ফাঁস দিয়ে কিশোরের ও বিদ্যুৎস্পৃষ্ঠে বৃদ্ধের মৃত্যু

মো. জাকির হোসেনঃ কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার গোপীনাথপুর গ্রামে মায়ের সাথে অভিমান করে মোঃ বাবু (১৫) নামে এক কিশোর গলায় ফাঁস দিয়ে ও উত্তর গ্রামে বৈদুতিক মটার দিয়ে পানি নিস্কাসনের সময় বিদ্যুৎস্পৃষ্ঠে মহিউদ্দিন হাসানী (৫৫) নামে এক বৃদ্ধের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, জেলার বুড়িচং উপজেলার পীরযাত্রাপুর ইউনিয়নের গোপিনাথপুর গ্রামের মধ্যপাড়া এলাকার মোঃ বাচ্চু মিয়ার পুত্র মোঃ বাবু রোববার সন্ধ্যা ৭টায় মায়ের সাথে অভিমান করে ঘরের দরজা বন্ধ করে তীরের সাথে রশি দিয়ে ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে। খবর পেয়ে বুড়িচং থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছে নিহতের লাশ উদ্ধার করে মর্গে পাঠায়। এ ব্যাপারে বুড়িচং থানা অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) মেজবাহ উদ্দিন ভূইয়া জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌছে লাশ উদ্ধার করেছি। এ বিষয়ে বুড়িচং থানায় একটি অপমৃত্যুর মামলা দায়ের পূর্বক গতকাল সোমবার সকালে লাশের ময়নাতদন্তের জন্য কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে।

এদিকে উপজেলার রাজাপুর ইউনিয়নের উত্তর গ্রাম এলাকার মৃত সৈয়দ এসকান্দার হাসানীর পুত্র মহিউদ্দিন হাসানী গতকাল সোমবার সকাল ১১ বাড়ী পার্শ্বে পুকুরে বৈদুতিক মটার দিয়ে পানি নিস্কাসন করা সময় অসতর্কতা বশতঃ বিদ্যুতের তাড়ের সাথে জড়িয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই তাঁর মৃত্যু হয়। খবর পেয়ে বুড়িচং থানার এস আই মোয়াজ্জেম সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থলে পৌঁছে নিহতের লাশ উদ্ধার পূর্বক কুমিল্লা মেডিক্যাল কলেজের মর্গে প্রেরণ করে।