বুড়িচংয়ে সন্ত্রাসী হামলায় চালিয়ে ২টি মার্কেট ভাংচুর, আহত ৮-১০ জন

বুড়িচং(কুমিল্লা) প্রতিনিধিঃ কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার বুড়বুড়িয়া ও শিকার পুর গ্রামের ২টি মার্কেটে খাড়াতাইয়া গ্রামের শাহ পরানের নেতৃত্বে সোমবার রাত সাড়ে ৮টায় ২৫-৩০ জন সন্ত্রাসী নিয়ে দেশীয় অস্ত্র শস্ত্র দিয়ে হামলায় চালিয়ে ভাংচুর ও লুটপাট করে।এসময় তাদের হামলায় ৮-১০জন গ্রাম বাসী মারাত্মাক ভাবে আহত হয়।আহতদের স্থানীয়ারা উদ্ধার করে বুড়িচং ও কুমিল্লা সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করে।এঘটনায় মঙ্গলবার বিকালে বুড়িচং থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করে।

এজাহার ও স্থানীয় সূত্র জানায় উপজেলার ষোলনল ইউনিয়নের বুড়বুড়িয়া গ্রামের হযরত আবতাব উদ্দিন (রা:)শাহ এর মাজারে প্রতি বছর ২০ ও ২১ মার্চ বাৎসরিক উরশ অনুষ্ঠিত হয়।এতে বিভিন্ন দোকান পাঠ এবং মাস ব্যাপি কাঠের মেলা বসে ।বিগত ২-৩ বছর ধরে খাড়াতাইয়া গ্রামের আবুল কাশের ছেলে শাহ পরান (৩৫) জোড় পূর্বক ভাবে এ মেলা বসিয়ে নিজে অর্থ হাতিয়ে নিচ্ছে এতে করে মাজার শরীফের কোন উন্নয়ন না হওয়ায় স্থানীয় বুড়বুড়িয়া গ্রামেরা লোকজনেরা

এ বছর শাহ পরানকে মেলায় দোকান পাঠ বসাতে নিষেধ করেন।এনিয়ে সোমবার রাত সাড়ে ৮টায় বুড়বুড়িয়া গ্রাম বাসী মাজার উন্নয়নের জন্য নিজেরা দোকান পাঠ এবং কাঠের মেলা বসানোর জন্য একটি বৈঠক বসে।বৈঠক চলাকালীন সময় শাহ পরানের নেতৃত্বে ২৫-৩০ জনের এক দল সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্র শস্ত্র নিয়ে প্রথমে বুড়বুড়িয়া গ্রামের মো:জাকির হোসেনের মার্কেটে অর্তকিত ভাবে হামলায় চালায় এবং পাশর্^বর্তী গ্রাম শিকার পুর হাজী মার্কেট ৩-৪টি সহ ১৮-১৯টি দোকান ভাংচুর এবংনগদ টাকা মালামাল লুটপাট করে নিয়ে যায়।এসময় হামলাকারীরা একটি মটর সাইকেল ও ভাংচুর করে।এতে প্রায় সর্বমোট ৫লক্ষ টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়।

সন্ত্রাসীদের হামলায় এসময় ৮-১০ জন আহত হয়।আহতরা হল বুড়বুড়িয়া গ্রামের সাবেক মেম্বার আব্দুল খালেক,মো: মাসুদ রানা,আবু তাহের,আরিফুল ইসলাম,মো: জাকির হোসেন,ইদ্রিস মিয়া, মো: ইসাক।আহতদেরকে বুড়িচং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও কুমিল্লা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।এঘটনায় ক্ষতিগ্রস্থ বুড়বুড়িয়া গ্রামের মার্কেটের মালিক মো: জাকির হোসেন বাদী হয়ে মঙ্গল বার বিকালে বুড়িচং থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ