মো.জাকির হোসেনঃ কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার কংশনগর এলাকায় সড়ক দুর্ঘটনায় আহত বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর সদস্য ফয়সাল আহমেদ (২৬) দীর্ঘ প্রায় সাড়ে ৩ মাস চিকিৎসাধীন শেষে না ফেরার দেশে চলে গেছেন। গত ২৪ নভেম্বও ২০১৮ ইং সালের দুপুরে তিনি মোটরসাইকেলযোগে দেবিদ্বার যাওয়ার পথে অজ্ঞাত গাড়ি চাপায় মারাত্নকভাবে আহত হয়েছিলেন। ১২ মার্চ মঙ্গলবার দুপুওে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকা সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে প্রান হারান।

নিহতের পারিবারিক সুত্রে জানা যায়, জেলার বুড়িচং উপজেলার মোকাম ইউনিয়নের মিথলমা গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য মোসলেম উদ্দিনের পুত্র ফয়সাল ছিলেন বাবা-মা’র একমাত্র সন্তান। প্রায় ৮ বছর আগে তিনিও বাবা’র মতো বাংলাদেশ পুলিশবাহিনীতে যোগদান করেন। বিগত ২০১৮ সালের ১৭ নভেম্বর তার একটি কন্যা সন্তান জন্ম নেয়। খুশির খবর পেয়ে সন্তানের আকিকা করতে তিনি বাড়ি আসেন। ২৪ নভেম্বর দুপুর আনুমানিক পৌনে ১ টায় মোটরসাইকেলযোগে ফয়সাল কুমিল্লা-সিলেট মহাসড়ক দিয়ে দেবিদ্বার যাওয়ার পথে বুড়িচংয়ের কংশনগর বাজারের পশ্চিম অংশে অজ্ঞাত গাড়ি চাপায় রাস্তার পাশে ছিটকে পড়ে যান।

পড়ে পিছনে থাকা একটি সিএনজি অটোরিক্সাযাত্রী বাংলাদেশ আনসার বাহিনীর সদস্য শাহজাদী লতা তাকে উদ্ধার করে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যায়। এসময় তার পকেটে থাকা পরিচয় পত্রে নিশ্চিত হয়ে শাহজাদী পরিবারকে বিষয়টি অবহিত করেন। এদিকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় পরবর্তিতে ফয়সালকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়। এরপর দীর্ঘদিন ঢাকা সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থেকে ১২ মার্চ রাতে তিনি মারা যান।

গতকাল বুধবার বাদ আছর তার নিজ গ্রাম মিথলমায় জানাযার নামাজ শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।