বুড়িচং কোরপাই-আবিদপুর সড়কে ভাঙ্গা সেতুতে ঝুকি নিয়ে চলাচল

মো.জাকির হোসেনঃ কুমিল্লার বুড়িচং উপজেলার মোকাম ইউনিয়নের কোরপাই-আবিদপুর সড়কের মিথলমা গ্রামে খালের উপর কয়েক বছর পূর্বে প্রকল্প বাস্তবায়নের অধীনে নির্মিত একটি ব্রীজ নির্মানের পর মাঝখানে ঢালাই খসে পড়ে যায়। এতে ওই এলাকার হাজার হাজার জনসাধারন,স্কুল-কলেজের ছাত্র-ছাত্রী,হাট বাজার গামী ব্যবসায়ী,যানবাহন মারাত্মক ঝুকি নিয়ে চলাচল করছে।এলাকার একাধিক সূত্র জানায়,এই ব্রীজটি নির্মানের সময় ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান নিম্ন মানের নির্মান সামগ্রী ব্যবহার করায় অল্প সময়ের মধ্যে ব্রীজের ঢালাই খসে পড়ে গিয়ে এলাকার জনসাধারনের জন্য এই ব্রীজটি এখন মরন ফাদে পরিনত হয়েছে।

সরজমিনে ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়,মোকাম ইউনিয়নের কোরপাই-আবিদপুর সড়ক একটি গুরুত্বপূর্ন একটি সড়ক।এই সড়ক দিয়ে দেবিদ্বার,মুরাদনগর সহ বিভিন্ন এলাকা থেকে দেশের বৃহত্তম সবজি বাজার নিমসারে এলাকার কৃষক তাদের উৎপাদিত কৃষি পন্য বাজারজাত করার জন্য এই সড়ক দিয়ে প্রতিদিন বিভিন্ন যানবাহনে করে বাজারে আসতে হয়।

এছাড়া ওই এলাকার জনসাধারন কুমিল্লা মহানগরীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে যাতায়াতের জন্য এই সড়ক ব্যবহার করে।অপরদিকে রয়েছে আবিদপুরে স্কুল,কলেজ,মাদ্রাসা অন্যদিকে নিমসার কোরপাই এলাকায় রয়েছে ঐতিহ্যবাহী নিমসার জুনাব আলী কলেজ,মহিলা উচ্চ বিদ্যালয়,নিমসার উচ্চ বিদ্যালয় বেশ কয়েকটি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও মাদ্রাসা।এই সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছাত্র-ছাত্রী শিক্ষকরা প্রতিনিয়তই এই সড়কের ঝুকি পূর্ন ব্রীজটি দিয়ে যাতায়াত করতে হচ্ছে।

এলাকার সাধারন জনগন অভিযোগ করে জানান,প্রায় সময়ই এই ব্রীজটির উপর দিয়ে বিভিন্ন যানবাহনে করে চলাচলের সময় দূর্ঘটনা ঘটে।ঠিক একই ভাবে স্কুল কলেজ গামী শিক্ষার্থীরা ও দূর্ঘটনার শিকার হন।নিমসার ও বিভিন্ন বাজারে কৃষি পন্য নিয়ে যাতায়াতের সময় কৃষকরা ব্রীজটি পারাপারের সময় যানবাহনের দূর্ঘটনায় পতিত হয়। স্থানীয়রা আরোও জানায়,রাতের বেলায় এই সড়কটি দিয়ে চলাচলে সাধারন জনগন যাত্রাবাহী যানবাহন মারাত্মক ঝুকি নিতে হয়।তাছাড়া এই সড়কটি মারাত্মক ঝুকি হওয়ার কারনে অধিকাংশ লোকজন বহু দূর ঘুরে বিকল্প রাস্তা দিয়ে চলাচল করতে হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক সূত্র জানায়,উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কার্যালয়ের অধীনে একটি ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান আনুমানিক বিগত ৪-৫ বছর পূর্বে কোরপাই-আবিদপুর সড়কের মিথলমা গ্রামের একটি খালের উপর এই ব্রীজটি নির্মান করা হয়।নির্মানের সময় ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান অনিয়মের আশ্রয় নিয়ে নিম্ন মানের নির্মাণ সামগ্রী ব্যবহার করে ব্রীজটি নির্মানে ।যার ফলে অল্প সময়ে ব্রীজটির মাঝখান থেকে ধীরে ধীরে ঢালাই খসে পড়ে গিয়ে এখন জনসাধারনের,শিক্ষার্থীসহ সর্বসাধারনের চলাচলে মরন ফাদে পরিনত হয়েছে।

এই ব্যাপারে বুড়িচং উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মো:মোস্তফা মাইদুল মোশের্দ মুরাদ বলেন যে,এই ব্রীজটির বিষয়ে আমি খোজখবর নিয়ে ব্যবস্থা নেব।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ