জে.এইচ বাবুঃ বহিরাগত সন্ত্রাসীরা বুড়িচং উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা হাসপাতালে প্রবেশ করে সরকারী পুকুর দখলের চেষ্ঠা কালে কর্মরত ডাক্তারদের সাথে বাকবিতন্ডা ও হুমকী ধমকির প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে রোগী না দেখে কর্ম বিরোতি পালন করে ডাক্তাররা। এতে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীরা চরম দূর্ভোগের মধ্যে পরে।

ডাক্তাররা জানান, বুড়িচং উপজেলা স্বাস্থ ও পরিবার পরিকল্পনা হাসপাতালের মধ্যে একটি পুকুর রয়েছে। দীর্ঘদিন যাবত হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ওই পুকুরে মাছ চাষ করে আসছে। সম্প্রতি সময়ে একটি সন্ত্রাসীদল হাসপাতালের ওই পুকুরে মাছের রেনু ফেলে দখলের চেষ্ঠার করে আসছে। গত বুধবার দুপুরে সন্ত্রাসী দল হাসপাতালে প্রবেশ করে ডাক্তারদের গালমন্দ হুমকি-ধমকি দেয়। হুমকী-ধমকীর প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে ৮ টা থেকেই সকল ডাক্তারগন এক যোগে রোগী দেখা বন্ধ করে কর্মবিরোতি শুরু করে। এসময় হাসপাতালে সেবা নিতে আসা শতাধিক রোগী দূর্ভোগের মধ্যে পরে। ডাক্তারদের রোগী দেখা বন্ধ থাকলেও ইমাজিন্সি সেবা চালু ছিল। দুই ঘন্টাপর সকল ডাক্তার উপজেলা পরিষদে যায়। সেখানে উপজেলা চেয়ারম্যান মোঃ আখলাক হায়দারের সাথে বৈঠক শেষে আড়াই ঘন্টা পর ১১ টায় ডাক্তাররা রোগী দেখো আরাম্ভ করে।

>>আরো পড়ুনঃ  মাদকের স্বর্গরাজ্য বুড়িচং, সন্তানদের ভবিষ্যত নিয়ে আতঙ্কিত অভিভাবক মহল

এ বিষয়ে উপজেলা স্বাস্থ ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ রতœা দাস জানান, বহিরাগতদের উৎপাতে অতিষ্ঠ হয়ে সকাল থেকেই সকল ডাক্তার কর্মবিরোতী পালন করে। পরে উপজেলা চেয়ারম্যান মহোদয় বহিরাগতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার আস্বাস দিয়ে ডাক্তাররা কর্মবিরোতি বন্ধ করে রোগী দেখা শুরু করে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: