ব্রাজিল না মেক্সিকো, কে এগিয়ে?

ডেস্ক রিপোর্টঃ চলতি রাশিয়া বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে ফেবারিটের তকমা লেগে রয়েছে ব্রাজিল দলের। আর সেই চাপ নিয়ে নকআউট পর্বে মেক্সিকোর বিপক্ষে মাঠে নামবে ব্রাজিল। যার জন্য ব্রাজিল প্রস্তুত বলে এরই মধ্যে স্পষ্টভাবে জানিয়ে দিয়েছেন কোচ তিতে। অনুশীলনেও বেশ চনমনে রয়েছেন নেইমার-কুতিনহোরা।

কিন্তু চারবছর আগের ব্রাজিল বিশ্বকাপের কথা মনে আছে আপনাদের? যেখানে একটি ম্যাচে দুই হাতের জায়গায় চার হাত গজিয়েছিলো এক ফুটবল গোলরক্ষকের। আর সেই ম্যাচে প্রায় পাঁচটি গোল একাই রুখে দিয়েছিল ওই গোলরক্ষক।

ভাবছেন কোন সেই দুই দল? আর গোলরক্ষকটাই বা কে ছিলেন? তাহলে চলুন ফিরে যায় চার বছর আগে ব্রাজিল বিশ্বকাপে, সেখানে মুখোমুখি হয়েছিল ব্রাজিল মেক্সিকো। সেই ম্যাচে মেক্সিকোর গোলরক্ষক গিলের্মো ওচোয়ার একাই অন্তত পাঁচটি গোল রুখে দিয়েছিলেন! সে সময়তো নেইমার, অস্কারদের রীতিমত মাথায় হাত।

চার বছর পর আবারও মুখোমুখি হতে যাচ্ছে ব্রাজিল-মেক্সিকো। এবারো নেইমার-কুতিনহোদের ঠেকাতে প্রস্তুত ওচোয়াও। পার্থক্য কেবল ২০১৪ বিশ্বকাপের ম্যাচটা ছিল গ্রুপপর্বে, আর রাশিয়া বিশ্বকাপে নকআউটে। অর্থাৎ, হার কিংবা ড্রয়ের কোনো জায়গা নেই এ ম্যাচে।

এর আগে অনেকবার মুখোমুখি হয়েছে এই দুই দল। আজ বিডি২৪লাইভের পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হল- রাশিয়া বিশ্বকাপে কে এগিয়ে? ইতিহাস কি বলছে?

১. এর আগে মোট ৪০ বার ব্রাজিল ও মেক্সিকো একে অপরের মুখোমুখি হয়েছে। যেখানে ২৩ বার জয়ী হয়েছে ব্রাজিল, আর ১০ বার জিতেছে মেক্সিকো। বাকি সাত ম্যাচে ড্র করে মাঠ ছেড়েছে দুই দল।

২. বিশ্বকাপে দু’দলের লড়াই হয়েছে চারবার। এর মধ্যে ব্রাজিলের জয় তিনটিতে আর বাকি এক ম্যাচ গোলশূন্য ড্র। এ ম্যাচটি হয়েছিল চারবছর আগে ব্রাজিল বিশ্বকাপে।

৩. গ্রুপ ‘জি’ থেকে সেরা হয়ে দ্বিতীয় রাউন্ডে উঠেছে ব্রাজিল। গ্রুপ ‘এফ’ থেকে রানার্সআপ হয়ে এসেছে জার্মানিকে হারানো মেক্সিকো।

৪. মেক্সিকোর সঙ্গে শেষ আট ম্যাচের সাতটিতেই গড়ে ২.৫ টি করে গোল দিয়েছে বা খেয়েছে ব্রাজিল।

৫. তবে শেষ তিন ম্যাচে মেক্সিকোকে কোনো গোল করতে দেয়নি নেইমাররা।

৬. কোনো বৈশ্বিক টুর্নামেন্টে ব্রাজিলের বিপক্ষে মেক্সিকোর শেষ জয় ২০০৭ সালে, কোপা আমেরিকায়। সেবার ২-০ গোলে জয় পেয়েছিল লাতিন দলটি।

৭. নিজেদের শেষ ১৫ ম্যাচের বারোটিতেই জয় পেয়েছে সেলসাওরা।

৮. শেষ ১৮ ম্যাচের পনেরোটিতে প্রতিপক্ষের জালে অন্তত দুইটি করে গোল করেছে ব্রাজিল।

৯. শেষ ১৩ ম্যাচে দশটিতেই নিজেদের জাল আটকে রেখেছেন ব্রাজিলিয়ান গোলরক্ষকরা।

১০. উইঙ্গার ডগলাস কস্তাকে মেক্সিকোর বিপক্ষে পাচ্ছেন না সেলেসাওদের কোচ তিতে। আর দুই হলুদ কার্ডে কাটা পড়েছেন মেক্সিকান ডিফেন্ডার হেক্টর মোরানো।

১১. ব্রাজিল স্কোয়াডে ফিরছেন সার্বিয়ার বিপক্ষে না খেলা দানিলো ও মার্সেলো। ডিফেন্ডার হুগো আয়ালাকে নিয়ে চিন্তায় আছেন মেক্সিকো কোচ হুয়ান কার্লোস ওসোরিয়ো।

১২. কাসেমিরো, নেইমার ও কুতিনহো আছেন হলুদ কার্ড নিয়ে শঙ্কায়। অন্যপ্রান্তে হেক্টর হেরেরা, মিগুয়েল লায়ুন ও জেসুস গ্যালার্দোর কার্ড নিয়েও শঙ্কায় মেক্সিকো।

১১. ফিলিপে কুতিনহো হতে পারেন ব্রাজিল কোচের তুরুপের তাস।

১২. হিরবিং লাজানোর দিকে কড়া নজর রাখতে হবে ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডারদের।

১৩. গ্রুপপর্বে প্রতিপক্ষকে পাঁচ গোল দিয়েছে ব্রাজিল। হজম করেছে একটি। সমান ম্যাচে মেক্সিকো গোল করেছে তিনটি। হজম করেছে চারটি।

সোমবার সামার স্টেডিয়ামে মেক্সিকোর বিরুদ্ধে শেষ ষোলোর লড়াইয়ে নামবে ব্রাজিল। ব্রাজিল দলের জন্য স্বস্তির খবর হল চোট সারিয়ে অনুশীলনে যোগ দিয়েছেন ইনজুরিতে থাকা ডগলাস কস্তা। তবে ম্যাচ শরুর আগেই দুই দলের খেলোয়াড়দের কথার যুদ্ধও শুরু হয়েছে। এরই মধ্যে মাঠে নেইমারের ওপর রেফারির চোখ রাখতে অনুরোধ করেছেন মেক্সিকোর অধিনায়ক আন্দ্রেস গুয়ার্দাদো।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ