ব্রাহ্মণপাড়ায় প্রবাসীর স্ত্রীকে উত্যক্ত করায় বিষপানে আত্মহত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ কুমিল্লা জেলার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার সাহেবাবাদ গ্রামে প্রবাসীর স্ত্রী এক সন্তানের জননীকে মোবাইল ফোনে ও ঘরে এসে উত্যক্ত করায় বিষপানে আত্মহত্যা করেছে ঐ গৃহবধূ।

জানা যায়, উপজেলার সাহেবাবাদ মধ্যপাড়া হাটিবাড়ীর মালদ্বীপ প্রবাসী মোঃ রবিউলের স্ত্রী রিমা আক্তার (২৪)কে একই এলাকার পাশ্ববর্তী আবদুস সালামের ছেলে বিবাহিত সোহেল মিয়া (৩০) গত ৫/৬ মাস যাবৎ মোবাইল ফোনে ও মাঝে মধ্যে ঘরে এসে বিরক্ত করত। স্বামী রবিউল গত ২ বছর যাবৎ মালদ্বীপে চাকুরি নিয়ে অবস্থান করছে এবং রায়হান নামে তাদের ৪ বছরের একটি ছেলে সন্তান রয়েছে। বাড়ীতে কোন পুরুষ মানুষ থাকত না বিধায় সোহেল প্রবাসী স্ত্রী রিনাকে খুব বেশী বিরক্ত করার সুযোগ পেত।

এ বিষয়টি নিয়ে রিনা তার বাবার বাড়ী বুড়িচং উপজেলার বারেশ্বর (পদুয়ারপাড়) বাবা জয়নাল আবেদীনসহ পরিবারের লোকদের অবগত করেছিল। গত শুক্রবার রাতে রিমার স্বামীর বাড়ীর জয়নাল মেম্বার, হুমায়ন কবির ও শাহজালাল মিয়াসহ কয়েকজন সাহেব সর্দার শালিশী বৈঠক বসিয়েছিল। বৈঠকটি রিমার মনে আঘাত লেগেছে বিধায় গতকাল শনিবার সকাল ৯টায় ছোট ভাই কলেজ পড়ুয়া মনিরকে ফোন করে বাড়ীতে আনে। ছোট ভাই মনির এ প্রতিনিধিকে জানায়, বাড়ীতে আসার পর সে দেখতে পায় তার বোন বমি করছে। সে বুঝতে পারে তার বোন কেরির টেবলেট খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে। তাৎক্ষনিক সে তার বোনকে ব্রাহ্মণপাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়। অবস্থার অবনতি হলে কুমিল্লা মেডিকেলে নেবার পথে সকাল ১১টায় বুড়িচং উত্তর বাজার এলাকায় তার মৃত্যু ঘটে। পরে লাশ তার স্বামীর বাড়িতে নেবার পর পুলিশকে খবর দিলে থানার এসআই হুমায়ন কবির ও এসআই মনির হোসেন প্রাথমিক সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করার পর লাশ থানায় নিয়ে আসে।

এ রিপোর্ট লিখা পর্যন্ত মৃত গৃহবধূর ভাই মনির বাদী হয়ে থানায় আত্মহত্যার প্ররোচনার মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি নিচ্ছিল।