ব্রাহ্মনপাড়ায় আত্নীয়র লাশ দেখতে গিয়ে নিজেই লাশ হয়ে ফিরলেন কমলা বেগম

আশিকুর রহমানঃ সকালে আত্নীয়র লাশ দেখতে গিয়ে বিকেলে নিজেই লাশ হয়ে ফিরলেন বৃদ্ধা কমলা বেগম। আজ ৮ মে কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার সাহেবাবাদ এলাকায় কুমিল্লা মিরপুর সড়কে বাস ও সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষে এঘটনাটি ঘটে। নিহত কমলা বেগম (৮০) ব্রাহ্মণপাড়া উপজেলার সাহেবাবাদ গ্রামের মোঃ সিরাজুল ইসলাম ওরফে বাদশা মিয়ার স্ত্রী। এ ঘটনায় তার পরিবারে শোকের ছায়া নেমে আসে।

সরজমিনে ঘুরে স্থানীয় লোকজনদের সাথে কথা বলে জানা যায়, মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলার সাহেবাবাদ ইউনিয়নের সাহেবাবাদ দক্ষিণপাড়া গ্রামের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ফরিদ উদ্দিন ডিলারের বাড়ীর সামনে কুমিল্লা মিরপুর সড়কে, মিরপুর থেকে ছেড়ে আসা কুমিল্লার গামী একটি যাত্রীবাহী বাস এবং পাশের উপজেলা বুড়িচং থেকে ছেড়ে একটি যাত্রীবাহী সিএনজি মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে এক বৃদ্ধা মহিলা সহ ৩ জন সিএনজি যাত্রী আহত হয়। এসময় স্থানীয় লোকজন তাদের উদ্ধার করে বিভিন্ন হাসপাতালে নিয়ে যায়। আহতদের মধ্যে কমলা বেগমকে স্থানীয় একটি প্রাইভেট হাসপালে নিয়ে যাওয়ার পর কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষনা করে।

নিহতের কমলা বেগমের বড় ছেলে সেলিম মিয়া সাংবাদিকদের জানান, আমার ছোট ভাই মামুনের দাদী শ্বাশুড়ীর মৃত্যুর সংবাদ শুনে আমার মা একই দিন সকালে পাশের উপজেলা বুড়িচংয়ে মামুনের শ্বশুড় বাড়ীতে যায়। সেখান থেকে বিকেল বেলা সিএনজি যোগে বাড়ী ফেরার পথে সাহেবাবাদ দক্ষিণপাড়া গ্রামের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ফরিদ উদ্দিন ডিলারের বাড়ীর সামনে সিএনজিটি এসে একটি বাসের সাথে মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়ে আমার মা আহত হয়। সংবাদটি শুনে আমি ও আমার বোন, আমার মাকে ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার করে স্থানীয় একটি প্রাইভেট হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত ডাক্তার আমার মা কে মৃত ঘোষনা করে।

খবর পেয়ে ব্রাহ্মণপাড়া থানার এস আই মোঃ জাকির হোসেন সঙ্গীয় ফোর্স সহ ঘটনাস্থালে উপস্থিত হয়ে সিএনজি আটক করে। পরে থানার এস আই যুযুৎসু যশ চাকমা সহ পুলিশের দলটি নিহত কমলা বেগমের বাড়ীতে গিয়ে তার লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে। এসময় স্বজনদের আবেদনের প্রেক্ষিতে নিহতের লাশ তাদের স্বজনদের নিকট হস্তান্তর করে।

ব্রাহ্মণপাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ সৈয়দ আবু মোহাম্মদ শাহজাহান কবির ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, এব্যাপারে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: