মনোহরগঞ্জে মৎস্য ও মৎস্য পণ্যের কোডেক্স এ্যালিমেন্টারিয়াস স্ট্যার্ন্ডাডস শীর্ষক সেমিনার

মনোহরগঞ্জ প্রতিনিধিঃ টিউবওয়েলের পানি স্বাস্থের জন্য ক্ষতিকর। আর বোতলজাত মিনারেল ওয়াটার নামের পানি তো আরো বেশি ভয়াবহ। অনিরাপদ খাদ্য ও ভেজাল খাদ্যের কারণে দেশের ৯৫ ভাগ মানুষ চরম স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে আছে। ফলে স্বাভাবিক মৃত্যু এখন অনিশ্চিত হয়ে পড়ছে।

বৃহস্পতিবার কুমিল্লার মনোহরগঞ্জে অনুষ্ঠিত এক সেমিনারে বিঞ্জানি ও সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ একথা বলেন। মৎস্য ও মৎস্য পণ্যের কোডেক্স এ্যালিমেন্টারিয়াস স্ট্যার্ন্ডাডস শীর্ষক এই সেমিনারের আয়োজন করে বাংলাদেশ অ্যাকোয়াকালচার অ্যালাইয়ান্স (বিএএ)ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের বিজনেস প্রমোশন কাউন্সিল(বিপিসি)। এতে সহায়তা করে মৎস্য অধিদপ্তর।সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন বিএএ’র সভাপতি মাকসুদুর রহমান। মূল প্রবন্ব উপস্থাপন করেন মৎস্য অধিদপ্তরের উপপরিচালক(অবঃ) কবির আহমেদ। আলোচনায় অংশ নিয়ে বক্তব্য রাখেন প্রাক্তন আঞ্চলিক মৎস্য কর্মকর্তা মোঃ নুরুল আমিন, বিপিসি’র নির্বাহি আবুল কালাম পাটোয়ারি, বিএএ’র নির্বাহি কর্মকর্তা রুহুল কুদ্দুছ প্রমুখ। সেমিনারে দারুল আরকাম মাদ্রাসার শিক্ষক সামছুদ্দোহা, স্থানীয় মৎস্য চাষি, মৎস্যজীবী, স্কুল- মাদ্রাসার শিক্ষক শিক্ষিকা, মসজিদের ইমাম এবং জনপ্রতিনিধিসহ প্রায় ১০০জন অংশ গ্রহণ করেন। সেমিনারে খাদ্য নিরাপত্তা, নিরাপদ খাদ্য উৎপাদন, বাজারজাত করণ, বিতরণ ও ব্যবস্থাপনা বিষয়ে বিশদ আলোচনা হয়।

সেমিনারে বিজ্ঞানীগণ বলেন-সব ধরনের পানিতেই ১০টি হেভি মেটাল বা ডার্টি ডজন নামের রাশায়নিক বিষ পদার্থ আছে কিনা তা নিশ্চিত হয়ে ব্যবহার করতে হবে তা না হলে ক্যান্সারের মতো নানান ঘাতক মরণ ব্যাধিতে আক্রান্ত হতে হবে। এসব বিষ পদার্থ সাধারণ ১০০ ডিগ্রি তাপমাত্রায় বিনাশ হয় না।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন:

ভালো লাগলে শেয়ার করুনঃ