মাহফুজুর রহমানঃ কুমিল্লার মুরাদনগরের নবীপুর পশ্চিম ইউনিয়নে এক স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টাকালে আবদুল আজিজ (২১) নামে এক যুবককে আটক করেছে স্থানীয় জনতা।

বুধবার সকাল ৭টায় এ ঘটনা ঘটে। পরে ওই যুবককে পুলিশে সোপর্দ করা হয়। আটককৃত আবদুল আজিজ দেবিদ্বার উপজেলার ভিংলাবাড়ী গ্রামের আঃ মালেকের ছেলে।

অপরদিকে গত ৬ জুলাই শনিবার উপজেলার কেওটগাঁও গ্রামের চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রীকে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায় মোস্তফা (৩২) নামে এক যুবক। ধর্ষক মোস্তফা দেবিদ্বার উপজেলার জয়পুর গ্রামের খোরশেদ মিয়ার ছেলে। পরদিন ৭ জুলাই স্কুল ছাত্রীর মা বাদী হয়ে মুরাদনগর থানায় নারী ও শিশু নির্যতন আইনে মামলা দায়ের করেন।

এ বিষয়ে মুরাদনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম মনজুর আলম বলেন, উপজেলার কোম্পানীগঞ্জ বদিউল আলম উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণীর এক ছাত্রী সকালে স্কুলে যাওয়ার পথে আবদুল আজিজ নামের একটি ছেলে পথরোধ করে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা চালায় পরে স্থানীয় জনতা তাকে আটক করে পুলিশে খবর দিলে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছে তাকে থানা হেফাজতে নিয়ে আসে। এ ঘটনা মুরাদনগর থানায় একটি মামলা হয়েছে এবং ছেলেটিকে গ্রেফতার পূর্বক বিজ্ঞ আদালতে সোপর্দ করা হয়েছে। অপরদিকে গত ৬ জুলাই উপজেলার কেওটগাও গ্রামের চতুর্থ শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ধর্ষণ করে পালিয়ে যায় মোস্তফা নামের এক রাজমিস্ত্রি। গত মঙ্গলবার রাতে মুরাদনগর থানার এসআই রিপনসহ একদল পুলিশ নোয়াখালী জেলার সেনবাগ থানা এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে। বর্তমানে সে আমাদের হেফাজতে আছে আমরা তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছি।

ইউটিউবে আমাদের চ্যানেলটি সাবস্ক্রাইব করুন: